প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জামায়াতের সংস্কারপন্থিদের দল ঘোষণা আজ

ডেস্ক রিপোর্ট : জামায়াতে ইসলামীর সংস্কারপন্থিরা নতুন রাজনৈতিক উদ্যোগের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবেন আজ। রাজধানীর একটি রেস্টুরেন্ট থেকে এই ঘোষণা দেওয়া হবে। এ লক্ষ্যে ইতিমধ্যে একটি ঘোষণাপত্রও চূড়ান্ত করা হয়েছে। এই প্রক্রিয়ায় সামনে থাকছেন জামায়াতে ইসলামী থেকে সদ্য বহিষ্কৃত নেতা মজিবুর রহমান (মঞ্জু)।

তিনি এক সময় ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি এবং পরে জামায়াতের কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরার সদস্য ছিলেন। সংবাদ সম্মেলন করে নতুন রাজনৈতিক উদ্যোগ শুরুর ঘোষণা দেবেন তিনি। অনুষ্ঠানে অতিথি বা পর্যবেক্ষক হিসেবে কয়েকজন বিশিষ্ট ব্যক্তিকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

সূত্র জানায়, এই উদ্যোগের সঙ্গে পরে সরাসরি যুক্ত হতে পারেন জামায়াত থেকে পদত্যাগী সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল ব্যারিস্টার আবদুর রাজ্জাক। তিনি বর্তমানে লন্ডনে অবস্থান করছেন। এ প্রসঙ্গে মজিবুর রহমান মঞ্জু বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, আমাদের নতুন রাজনৈতিক উদ্যোগ গ্রহণের সিদ্ধান্ত ঘোষণার জন্য আজ বেলা ১১টায় পল্টনের একটি রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলন আহ্বান করেছি। এখানে নির্দিষ্ট সংবাদকর্মী ও সুধীদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, জামায়াতের ভিতরে সংস্কারের দাবি দীর্ঘদিনের। দলীয় ফোরামে বার বার এ দাবি উঠলেও একাংশের বিরোধিতায় ভেস্তে গেছে সেই উদ্যোগ। এই অবস্থায় সংস্কার দাবি করা নেতাদের কেউ দল ছেড়েছেন, কাউকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। তাদের অভিমত, জামায়াত অতীত আমলের ধ্যান-ধারণা থেকে বেরিয়ে আসবে না। এটি ধরে নিয়ে নতুন দল গড়ার উদ্যোগ নিয়েছেন দলটির সংস্কারপন্থি নেতারা। ইতিমধ্যে সেই প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। আজ ঘোষণার পর পর্যায়ক্রমে দলের গঠনতন্ত্র ও ইশতেহার চূড়ান্ত করে তিন মাসের মধ্যে রাজনীতিতে সোচ্চার হওয়ার পরিকল্পনা তাদের। তবে এ উদ্যোগের সঙ্গে জড়িতরা দল গঠনের বিষয়টি স্বীকার করতে চাইছেন না। তারা এটিকে নতুন রাজনৈতিক উদ্যোগ বলে অভিহিত করতে চাইছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নতুন দলের নাম এখনো চূড়ান্ত হয়নি। তবে এ দলে যারা থাকছেন তারা সবাই তুলনামূলকভাবে কম বয়সের ও শিবিরের সাবেক নেতা। মূলত একাত্তর-পরবর্তী প্রজন্মের লোকজনকে নিয়ে নতুন দল গঠন করা হচ্ছে। শিবিরের সাবেক সভাপতি ও জামায়াত থেকে বহিষ্কৃত মজিবুর রহমান মঞ্জু দল গঠনে সমন্বয়কের ভূমিকায় রয়েছেন। ঠিক কারা এ প্রক্রিয়ায় যুক্ত তা নিয়ে এখনই মুখ খুলতে চাচ্ছেন না সংশ্লিষ্টরা।

নতুন এ উদ্যোগের বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এখনই তারা সরাসরি নতুন রাজনৈতিক দল গঠনের ঘোষণা দেবেন না। নতুন রাজনৈতিক উদ্যোগে ইসলাম বা ধর্মভিত্তিক সংগঠনগুলোকে অনুসরণ করা হবে না। সাম্য ও মানবাধিকারকে বেশি গুরুত্ব দেবেন।
সূত্র : বাংলাদেশ প্রতিদিন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত