প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জাহিদুরের শপথের সুযোগ নিলেন ড. কামাল, ২৯ এপ্রিলের মধ্যে নাটকীয় আরো কিছু ঘটতে পারে!

শাহানুজ্জামান টিটু : বিএনপির নির্বাচিতদের মধ্যে জাহিদুর রহমান সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেয়ায় এই সুযোগকে কাজে লাগালেন গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে শপথ নেয়া সংসদ সদস্য মোকাব্বির খানকে কাউন্সিলের মঞ্চে বসালেন ড.কামাল।

এ নিয়ে বিএনপির প্রতিক্রিয়া নেই। তবে দলের দায়িত্বশীল এক নেতা জানান, ড. কামাল হোসেনের ভ’মিকা নিয়ে তিনিও অন্ধকারে। কিছু সময় মনে হয় তিনি খুব চেনা, পরক্ষণে তার ভ’মিকা দেখে মনে হয় তিনি খুবই অচেনা। শুনেছিলাম যে মোক্কাবিরকে তিনি অফিসে ঢুকতে দেননি। তাকেই আবার আজ তার পাশে বসিয়েছেন। সম্ভবত তিনি জাহিদুরের ইস্যুতে সুযোগ নিলেন।

জাহিদুর রহমান শপথ নিয়ে বলেন তিনি আপাতত সংসদ অধিবেশনে যোগ দেবেন না। অন্যদেরও শপথ নেয়ার কথা রয়েছে। তারা শপথ নিলে একসঙ্গে সংসদে যোগ দেবো। গুঞ্জন রয়েছে বিএনপির আরো তিন নির্বাাচিত সদস্য ২৯ তারিখের মধ্যে শপথ নেবেন। দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে শপথ নেয়ায় দলের নেতাকর্মীরা ক্ষুব্ধ। দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেয়ার অপরাধে ইতিমধ্যে তৃণমুলের প্রায় দুই শতাধিক নেতাকর্মীকে বহিস্কার করা হয়েছে। একই অপরাধে অভিযুক্ত জাহিদুর রহমান।

সূত্র জানায়, এখনো যারা শপথ নেননি তারা অপেক্ষায় এই চারদিনের মধ্যে নাটকীয় কিছু ঘটতে পারে। এরমধ্যে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার প্যারোল বা জামিনের মুক্তি পেতে পারেন। দলীয় প্রধানের মুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত হলে সংসদে যোগ দেয়ার বিষয়টি সহজ হবে তাদের জন্য।

কথা ছিলো খালেদা জিয়ার মুুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত হতে পারলে বিএনপির নির্বাচিতরা সংসদে যোগ দেবেন। কিন্তু তা হয়নি। কথা রাখেননি জাহিদুর। অপেক্ষা না করেই তড়িঘড়ি করে কাউকে না জানিয়ে শপথ নিয়ে ফেলেন তিনি। তার এই আচারণে কিংকর্তব্যবিমূঢ় বিএনপি ও অন্য নির্বাচিতরা। তারাও বুঝতে পারছেন এখন তাদের কি করনীয়। তাই তাদের অপেক্ষা দল কি সিদ্ধান্ত দেয়। দলের স্থায়ী কমিটির সভায় জাহিদের বিষয়ে কি সিদ্ধান্ত নেয়া হয় তা দেখেই সিদ্ধান্ত নেবেন বাকিরা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত