প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সৌদি নারীদের ওপর নজরদারিতে আসছে ‌‘অ্যাপ’

নিউজ ডেস্ক : একের পর এক নারীদের স্বাধীনতা হরণে যেন মেতে উঠেছে সৌদি সরকার। সৌদি নারীদের দেশ ছেড়ে পালানোর সমাধানকল্পে না গিয়ে বরং নারীদের কীভাবে শিকলবন্দী করা যায় তা নিয়ে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে দেশটির সরকার। আর তারই অংশ হিসেবে এবার নারীদের আচারণ এবং তাদের সন্দেহজনক কথাবার্তা সরকারকে জানাতে অ্যাপস চালু করছে দেশটি।

আইওএস ও অ্যান্ড্রয়েড দুই প্ল্যাটফর্মেই কাজ করবে এই অ্যাপ, যা সার্বক্ষনিক নজরদারি চালাবে পুরুষের কোনো মহিলা বন্ধু, আত্মীয় কিংবা তার নিজের স্ত্রীর ওপর।

নতুন এই অ্যাপটির নাম অ্যাবশের। এটি মূলত একটি ই-গভর্নমেন্ট ও ই-সার্ভিসেস পোর্টাল। এর মাধ্যমে খুব সহজেই পাসপোর্ট, বার্থ সার্টিফিকেট, গাড়ির রেজিস্ট্রেশন করা যায়। কিন্তু এরই সঙ্গে এই অ্যাপের মাধ্যমে নারীদের গতিবিধির ওপর নিয়ন্ত্রণ ও নজরদারিও চালানো যাবে। এই অ্যাপস নিয়ে সৌদি নারীদের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।

মানবাধিকার কমিশনের একজন প্রবীণ গবেষক রোথনা বেগমের মতে, এই অ্যাপটি তৈরি করা হয়েছে পুরুষদের দৃষ্টিভঙ্গি থেকে। তিনি বলেছেন, ‘এটি নারীদের জন্য অত্যন্ত কুরুচিকর, অপমানজনক ও অবমাননাকর। এতে আপনি একজন নারীর গতিবিধি একজন পুরুষের হাতে তুলে দিচ্ছেন।’’

রাজতন্ত্রের দেশ সৌদি আরবে নারীদের মতপ্রকাশের কোনো স্বাধীনতা নেই বললেই চলে। পোশাক থেকে শুরু করে গুরুত্বপূর্ণ মতামতের ক্ষেত্রে নারীদের কোনো প্রাধান্য দেওয়ার সুযোগ নেই। এছাড়া পরিবার দ্বারা শারীরিক এবং মানুষিক নির্যাতনের কারণে দেশটির তরুণীরা দেশ ছেড়ে পালিয়ে যেতে বাধ্য হচ্ছেন। ঠিক এমনই একটা সময় সৌদি নারীদের ওপর কঠোরতার খড়গ বাড়িয়ে দিতে অ্যাপের মাধ্যমে নজরদারি বাড়াল দেশটির সরকার।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত