প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শাহজালালে ১০টি সোনার বারসহ আটক ৩

সুজন কৈরী : হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৃথক ঘটনায় দেড় কোটি টাকা সমমূল্যের ৩ হাজার ২৬০গ্রাম ওজনের সোনার বারসহ তিনজনকে আটক করেছে বিমানবন্দর আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এএপি) এবং শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। আটককৃতরা হলেন- মো. সৈয়দ আহমদ, মো. হারুণ ও মো. এরফানুল ইসলাম। শুক্রবার বিকেলে তাদের আটক করা হয়।

এএপির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপারেশন্স অ্যান্ড মিডিয়া) মো. আলমগীর হোসেন বলেন, এরফানুল বেলা আড়াইটায় বিজি ০২৩৬ নম্বরস্থ ফ্লাইটে সিলেট থেকে ঢাকায় আসেন। অবতরণের পর অতি দ্রুত অভ্যন্তরীণ টার্মিনাল পার হয়ে ট্যাক্সিযোগে পালিয়ে যাওয়ার সময় তাকে আটক করা হয়। এরপর জিজ্ঞাসাবাদে তিনি তার পায়ুপথে সোনার বার থাকার কথা জানান। পরে বিশেষ প্রক্রিয়ায় পায়ুপথ থেকে সোনার বারগুলো বের করে দিলে তা জব্দ করা হয়। বারগুলোর ওজন এক কেজি ১৬০গ্রাম। দাম আনুমানিক ৪৫লাখ টাকা। এরফান চট্টগ্রামের সাতকানিয়ার বারদুনা গ্রামের মৃত নবী হোসেনের ছেলে।

শুল্ক গোয়েন্দার মহাপরিচালক ড. সহিদুল ইসলাম বলেন, বিকেল সাড়ে ৩টায় বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে (বিজি ০২৩৬) সিলেট থেকে ঢাকায় আসেন সৈয়দ আহমদ ও হারুণ। গোপন তথ্যে ডোমেস্টিক টার্মিনাল থেকে তাদের সনাক্তের পর আটক করে স্বর্ণের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। সোনার বিষয়ে অস্বীকার করলেও তাদের আচরণ সন্দেহজনক হওয়ায় সোনা থাকার বিষয়টি আরো স্পষ্ট হয়। এরপর সৈয়দ আহমদের লাগেজ কাস্টমস গ্রীণ চ্যানেলে এনে তল্লাশি করে তার সঙ্গে রাখা চশমার বক্সে স্কচটেপে মোড়ানো অবস্থায় ৮টি সোনারবার পাওয়া যায়। যার ওজন ৯৩২ গ্রাম। এছাড়া অপর যাত্রী হারুণকে আর্চওয়ে করানো হলে সোনা থাকার বিষয়টি স্পষ্ট হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তার পায়ুপথে সোনা থাকার কথা স্বীকার করেন। পরে বিভিন্ন সংস্থার উপস্থিতিতে বিমানবন্দরের টয়লেটে তিনি ৫টি সোনার পোটলা বের করে দেন। পোটলাগুলো ব্যাগেজ কাউন্টারে নিয়ে তা খুলে ১০টি সোনার বার পাওয়া যায়। যার ওজন ১হাজার ১৬৮ গ্রাম। দুই যাত্রীর কাছ থেকে মোট ২হাজার ১শ’ গ্রাম ওজনের সোনার বার উদ্ধার করা হয়। যার আনুমানিক মূল্য এক কোটি ৫লাখ টাকা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত