প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অমুসলিম দেশের যে মুসলিম তারকারা বিশ্বকাপ মাতাবেন

স্পোর্টস ডেস্ক : আর মাত্র ৩৩ দিনের অপেক্ষা। এরপরেই শুরু হবে বিশ্বক্রিকেটের মহাযজ্ঞ। আগামী ৩০ মে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের মাটিতে শুরু হবে ক্রিকেট বিশ্বকাপের ১২তম আসর। বিশ্বকাপকে সামনে রেখে অংশগ্রহণকারী দশটি দেশই ইতিমধ্যে দল গোছানো ও ঘোষণার কাজ সেরে ফেলেছে। কিন্তু কথা হলো এইসব দেশগুলো থেকে বিশ্বকাপ মাতানো মতো মুসলিম তারকা কেমন আছে?

এবারের বিশ্বকাপে ১০টি দলের মধ্যে সাতটি অমুসলিম দলের পাশাপাশি তিনটি মুসলিম দল অংশ নেবে। মুসলিম তিনটি দেশ হচ্ছে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান। মুসলিম তিনটি দেশে মধ্যে শুধু মাত্র বাংলাদেশ দলেই আছে দুজন অমুসলিম ক্রিকেটার। বাকি তিন দলে ৪৩ জনের সবাই মুসলিম। বাংলাদেশ দলে রয়েছে সৌম্য সরকার ও লিটন দাস।

অন্যদিকে অমুসলিম সাতটি দলের মধ্যে মোট ছয়জন জন ক্রিকেটার মুসলিম। যারা বিশ্বকাপে আলাদাভাবে নজর কাড়তে সক্ষম হবেন। অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ভারতের হয়ে মাঠ মাতাবেন তারা। ছয়জন ক্রিকেটার হলেনÑ হাশিম আমলা, ইমরান তাহির, মঈন আলী, আদিল রশিদ, উসমান খাজা ও মোহাম্মদ সামি।

হাশিম আমলা ও ইমরান তাহির দক্ষিণ আফ্রিকা দলে খেলে যাচ্ছেন অনেকদিন ধরে। ২০১১ ও ২০১৫ সালের বিশ্বকাপের পর এবারের বিশ্বকাপেও খেলছেন দুই ক্রিকেটার।

তাছাড়া অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট ইতিহাসে প্রথম কোন মুসলিম ক্রিকেটার হিসেবে বিশ্বকাপে খেলবেন উসমান খাজা। জাতীয় দলে খেলার পাশাপাশি এই প্রথম বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পেয়েছেন। সাম্প্রতিক সময়ে জাতীয় দলের হয়ে দুর্দান্ত পারফর্ম করেছেন তিনি।

এবারের বিশ্বকাপে স্বাগতিক দল ইংল্যান্ডে রয়েছেন দুই মুসলিম তারকা ক্রিকেটার রয়েছেন মঈন আলী ও আদিল রশিদ। জাতীয় দলের হয়ে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে দুর্দান্ত খেলেছেন তারা। যে কারণে বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পেয়েছেন তারা। সবশেষ ২০১৫ সালের বিশ্বকাপ দলে ছিলেন মঈন আলী। আর ২০১১ সালের বিশ্বকাপে ছিলেন আদিল রশিদ।

প্রতিবেশী দেশ ভারতে প্রতিবারই অন্তত একজন করে মুসলিম তারকা ক্রিকেটার সুযোগ পান। এবারও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের একমাত্র মুসলিম ক্রিকেটার মোহাম্মদ সামি। তিনি ২০১৩ সাল থেকে দেশে হয়ে খেলছেন। ডানহাতি এই পেসার ২০১৫ সালের বিশ্বকাপ দলেও ছিলেন তিনি। মুসলিম দেশ হওয়ায় মুসলিম তারকাদের প্রতি আলাদাভাবে নজর দেয়া হয়। আসন্ন বিশ্বকাপে সবাই ভালো করুক এমনটাই কামনা করছে মুসলিমবিশ্ব।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত