প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আইসিসির প্রতিবেদকে বিশ্বকাপে চমকে দেওয়া পাঁচ ক্রিকেটারের মধ্যে মোসাদ্দেক

স্পোর্টস ডেস্ক: ২০১৬ সালে অভিষেক হয়ে প্রথমবার বিশ্বকাপের দলে জায়গা পেয়েছেন বাংল্যাদেশ জাতীয় দলেরু অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। প্রথমবারের মতো ক্রিকেটের বড় চমকে দিতে পারে মোসাদ্দেক, মনে করেন ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া দলগুলোর অনাকাক্সিক্ষত ভাবে জায়গা পাওয়া পাঁচ ক্রিকেটারকে নিয়ে আইসিসি তাদের ওয়েবসাইটে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

চমকে দেয়া সেই পাঁচ জনের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন মোসাদ্দেক। প্রতিবেদনের মতে দল নির্বাচনে নির্বাচকরাও দারুণ চমক রেখেছেন। আইসিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী পাঁচ ক্রিকেটারের নাম দেখা যাক…..

মোসাদ্দেক হোসেন (বাংলাদেশ): ২৩ বছর বয়সী এই টাইগার অলরাউন্ডার সবশেষ ওয়ানডে খেলেছেন ২০১৮ সালের এশিয়া কাপে। তাই বিশ্বকাপ দলে তার জায়গা পাওয়া অনেকটাই অনিশ্চিত ছিল। তবে ঘরোয়া ক্রিকেটে দুর্দান্ত খেলে বিশ্বকাপ দলে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। ২৪ ওয়ানডেতে ৩১ গড়ে ৩৪১ রান করেছেন তিনি। এই ফরম্যাটে মাত্র একটি অর্ধশতক রয়েছে তার ঝুলিতে। নির্বাচকরা তাঁর অলরাউন্ড পারফরমেন্সের উপর আস্থা রেখেছেন। তার অফ ব্রেক বোলিং বিশ্বকাপের আসরে কাজে লাগবে বলেই বিশ্বাস তাদের। সদ্য শেষ হওয়া ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের আসরে ৪৮.৮০ গড়ে ৪৮৮ রান করেছেন, সঙ্গে আবাহনীকে শিরোপা জেতাতে বল হাতেও রেখেছেন গুরুত্বপূর্ণ অবদান।

বিজয় শঙ্কর (ভারত): গত এক বছর ধরেই চার নম্বরের ব্যাটসম্যানের খোজে রয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। বিশ্বকাপের আসরে এই গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় ব্যাট করতে দেখা যাবে বিজয়কে। তার অভিজ্ঞতা কেবল গত অক্টোবরে ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ। সেই সিরিজে দারুণ পারফরম্যান্সে নির্বাচকদের নজর কেড়েছেন, পেছনে ফেলেছেন আম্বাতি রাইডুর মতো অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানকে। বিজয়কে ত্রিমাতৃক ক্রিকেটার হিসেবে আখ্যা দেয়া হয়েছে। যিনি ব্যাটিংয়ের সাথে বোলিং ও ফিল্ডিংয়েও ভারতের হয়ে সমান ভাবে অবদান রাখবেন বলে বিশ্বাস নির্বাচকদের।

হামিদ হাসান (আফগানিস্তান): ফিটনেসের অভাবে ২০১৬ সাল থেকেই জাতীয় দলের বাইরে হামিদ। ৩১ বছর বয়সী এই পেসারের সামর্থ্য আর অভিজ্ঞতা নিয়ে কোনো প্রশ্ন ছিল না। তাই সোজা বিশ্বকাপ দলে নেয়া হয়েছে তাকে। ৩২ ম্যাচে ৫৬ উইকেট নিয়ে আফগানিস্তানের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি হামিদ। এই বছরের শুরুতে জিম্বাবুয়ে ও আরব আমিরাতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি দলে ডাক পেয়েছিলেন। তবে কোনো ম্যাচ খেলতে পারেননি তিনি।

টম ব্লান্ডেল (নিউজিল্যান্ড): বিশ্বকাপকে সামনে রেখে এবার সবার আগে দল ঘোষণা করেছে নিউজিল্যান্ড। কিউই দলে সবচেয়ে বড় চমক টম ব্লান্ডেল। দুই টেস্ট ও তিন টি-টোয়েন্টি খেলার অভিজ্ঞতা থাকলেও ওয়ানডে অভিষেক হয়নি তার। নিউজিল্যান্ডের হয়ে সবশেষ খেলেছেন ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে। নিউজিল্যান্ডের স্কোয়াডে মূলত তিনি জায়গা পেয়েছেন ব্যাকআপ উইকেটরক্ষক হিসেবে।

মিলিন্দা শ্রীবর্ধনে (শ্রীলঙ্কা): গত ১৮ই এপ্রিল অনেক বড় চমক দিয়ে দল ঘোষণা করেছে শ্রীলঙ্কা। দলে সবচেয়ে বড় চমক শ্রীবর্ধনে। ২০১৭ সালে সবশেষ ওয়ানডে খেলেছেন, ২৬ ম্যাচে ৫১৩ রান করা এই খেলোয়াড়ের গড় মাত্র ২৩.৩১। সাম্প্রতিক সময়ে ঘরোয়া ক্রিকেটেও তার কোনো নজরকাড়া পারফরমেন্স ছিল না। তবে নির্বাচকরা জানিয়েছেন বিশ্বকাপে ৬ নম্বরের মতো গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় ব্যাট করবেন তিনি। সঙ্গে বল হাতেও ভূমিকা রাখবেন বলে বিশ্বাস তাদের।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত