প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যশোরের জেলা প্রশাসকসহ ১১ জনের নামে মামলা

নিউজ ডেস্ক : যশোর হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এবং জেলা প্রশাসকসহ ১১ জনকে আসামি করে আদালতে মামলা হয়েছে। গত বুধবার একই কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডা. এ কে এম মহিদুর রহমানসহ পাঁচজন বাদী হয়ে এ মামলা করেন। সদর সহকারী জজ আদালতের বিচারক অভিযোগটি আমলে নিয়ে আসামিদের প্রতি সমন জারির আদেশ দিয়েছেন।

মামলার অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, এ মামলার পাঁচ বাদীই হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ও প্রভাষক পদে কর্মরত।

২০০৫ সালের ৩১ অক্টোবর থেকে অধ্যক্ষ না থাকায় আবু নছর ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি অবসরে গেলে শিক্ষকতায় সাত বছরের অভিজ্ঞতা নিয়ে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব পান হাফিজুর রহমান। যা ছিল হোমিও বোর্ডের বিধি বর্হিভূত।

হোমিওপ্যাথিক কলেজ ১১ সদস্যের ব্যবস্থাপনা কমিটির মাধ্যমে পরিচালিত হয়। বর্তমান ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নিকট আত্মীয় ও নিজের পছন্দের লোক দিয়ে অসম্পূর্ণ একটি কমিটি গঠন করে বোর্ডে অনুমতির জন্য পাঠান। আজও তার কোনো অনুমোদন হয়নি। হাফিজুর রহমান ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব পাওয়ার পর একাধিক ভুয়া ডিগ্রি লাগিয়ে চিকিত্সার নামে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছেন।

প্যারামেডিক্যাল হোমিও কলেজ ও হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে বিভিন্ন ভাবে টাকা আদায় করে বিত্ত বৈভবের মালিক হয়েছেন।

সূত্র : কালের কণ্ঠ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত