প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ময়মনসিংহে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহের ২য়দিনে কৃষকদের মাঝে পুষ্টি বিষয়ক আলোচনা ও প্রতিযোগিতা

আব্দুল্লাহ-আল আমীন, ময়মনসিংহ : পুষ্টি বিষয়ে জনসচেতনতা সৃষ্টি ও পুষ্টি উন্নয়নের গতিকে ত্বরান্বিত করার মাধ্যমে অভীষ্ঠ অর্জনের লক্ষ্য নিয়ে গত মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়েছে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ-২০১৯।

জনগণের খাদ্যাভাস ও খাদ্য পরিকল্পনায় পুষ্টির বিষয়টিকে গূরুত্ব দেয়ার লক্ষ্যে এবছর পুষ্টি সপ্তাহের প্রতিপাদ্য নির্ধারন করা হয়েছে ‘খাদ্যের কথা ভাবলে পুষ্টির কথাও ভাবুন’। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রনালয়ের উদ্যোগে ২৩ এপ্রিল থেকে ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে এই পুষ্টি সপ্তাহ।২৪ এপ্রিল, বুধবার সকালে ময়মনসিংহ সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সামনে কৃষককের নিয়ে মৌসুম অনুযায়ী ফলমূল ও শাকসব্জী উৎপাদন বিষয়ক আলোচনা ও প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আলোচনা সভা ও প্রতিযোগিতায় উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক ডা: আবুল কাশেম, ময়মনসিংহের সিভিল সার্জন ডা. এ,কে,এম আব্দু রব, জামালপুরের সিভিল সার্জন,ডা. গৌতম রায়, শেরপুরের সিভিল সার্জন ডা. রেজাউল করিম, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. কামাল উদ্দিন আহম্মদ, সদর উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা তাহমিনা ইয়াসমিন।ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. পরীক্ষিত কুমার পাড়ের সঞ্চালনায় ও সদর উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসের সহযোগিতায় কৃষকদের ‘খাদ্যের কথা ভাবলে পুষ্টির কথাও ভাবুন’। এই প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে কৃষকদের মাঝে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে পুষ্টির গুনাবলী তুলে ধরেন কৃষি কর্মকর্তা তাহমিনা ইয়াসমিন।বিভাগীয় পরিচালক স্বাস্থ্য ডা: আবুল কাশেম বলেন, দেশের সবচেয়ে দুস্থ ও ঝুঁকিপূর্ণ মানুষ যাদের দারিদ্র্য ও খাদ্য নিরাপত্তাহীনতা সর্বোচ্চ পর্যায়ে, যারা প্রাকৃতিক দুর্যোগের শিকার এবং যারা অতি প্রান্তিক এলাকায় বসবাস করে তাদেরও পুষ্টি নিশ্চিত করা হবে।

সিভিল সার্জন ডা. এ,কে,এম আব্দু রব বলেন সরকার ২০২৫ সালের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের অপুষ্টি হ্রাস করতে ‘জাতীয় পুষ্টিনীতি ২০১৫’ ও অন্যান্য নীতির লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য অনুসরণ করে দ্বিতীয় জাতীয় পুষ্টি কর্মপরিকল্পনায় (২০১৬-২০২৫) কয়েকটি সূচক ও লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে এর সঠিক বাস্তবায়নে আমরা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছি।স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ২৩ এপ্রিল থেক ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহের দ্বিতীয় দিনে কৃষককের নিয়ে মৌসুম অনুযায়ী ফলমূল ও শাকসব্জী উৎপাদন বিষয়ক প্রতিযোগিতায় উত্তীর্ণ কৃষকদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করা হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত