প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বাংলাদেশে চিকিৎসা, ক্লিনিকাল ল্যাব ও স্বাস্থ্যসেবা শিল্পের বৃহত্তম আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী শুরু ২ মে

স্বপ্না চক্রবর্তী : দক্ষিণ এশিয়ার চিকিৎসা, ক্লিনিক্যাল ও স্বাস্থ্য সেবা শিল্পের অন্যতম বৃহত্তম প্রদর্শনী “১২তম মেডিটেক্স বাংলাদেশ ২০১৯” শুরু হচ্ছে ২ মে থেকে। রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরা (আইসিসিবি) তিন দিন ব্যাপী এই আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া, প্রদর্শনীর পাশাপাশি ‘৪র্থ আন্তর্জাতিক হেলথ ট্যুরিজম এক্সপো-২০১৯’ এবং ‘৫ম বাংলাদেশ ক্লিনিক্যাল ল্যাব এক্সপো-২০১৯’ও একই সাথে অনুষ্ঠিত হবে।

বুধবার আয়োজক সংস্থা সেমস গ্লোবাল রাজধানীর পল্টনে একটি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। সংবাদ সম্মেলনে সেমস গ্লোবালের গ্রুপ ম্যানেজিং ডিরেক্টর মেহেরুন এন. ইসলাম জানান, এসব প্রদর্শনীতে স্বাগতিক বাংলাদেশসহ ভারত, থাইল্যান্ড, চীন, কোরিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, অস্ট্রেলিয়া, সুইডেন, জার্মানি, ডেনমার্ক, যুক্তরাজ্য, তাইওয়ান, তুরস্কের প্রায় ১২০টি প্রতিষ্ঠান ২৮০টি স্টল নিয়ে অংশগ্রহণ করছে। তিনি বলেন, স্বাস্থ্য খাতের বৃহৎ এ প্রদর্শনীতে থাকবে মেডিকেল, সার্জিক্যাল, হেলথকেয়ার, ক্লিনিক্যাল ল্যাব ইকুইপমেন্ট, ডেন্টাল ও ডায়াগনস্টিক সরঞ্জাম এবং ফার্মাসিউটিক্যাল ইকুইপমেন্টের বিশাল সমাহার। উক্ত প্রদর্শনীটি আগত দেশী-বিদেশী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও দর্শক, বিনিয়োগকারীদের জন্য ওয়ান স্টপ প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করবে। স্বাস্থ্য সেবা প্রদানকারীর প্রতিষ্ঠান স্বাস্থ্য সেবাগুলোতে তাদের পরিসেবা এবং সর্বশেষ উন্নয়নগুলো প্রদর্শন করবে। এছাড়া, হেলথ টুরিজম ও সার্ভিস উপকরণের জন্য থাকছে বিশেষ আয়োজন। প্রদর্শনীগুলোতে আগত দর্শনার্থী এবং সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী ও প্রতিষ্ঠানের জন্য প্রতিদিন ফারটালিটি এবং থাইরয়েড রোগ ও অন্যান্য রোগ সংক্রান্ত বিষয়ে অভিজ্ঞ চিকিৎসকগণ দ্বারা সেমিনারের আয়োজন করা হবে। মেহেরুন এন. ইসলাম বলেন, অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য মানুষের ক্রয় ক্ষমতা যেমন বেড়েছে, অন্যদিকে মুল্যস্ফীতি সহনীয় পর্যায়ে থাকায় মানুষের জীবনমানের উন্নয়ন হয়েছে। ২০০৯ সালে মুল্যস্ফীতি ছিল ডাবল ডিজিটে। বর্তমানে মূল্যস্ফীতি ৫.০৩ শতাংশ। ৫ কোটি মানুষ নিম্নবিত্ত থেকে মধ্যবিত্ত শ্রেণীতে উন্নীত হয়েছে। বিগত আট বছরে দেশ-বিদেশে প্রায় দেড় কোটি মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে। ফলে, বাংলাদেশের মেডিকেল সেক্টর, স্বাস্থ্যসেবা সংস্থা এবং চিকিৎসা প্রশিক্ষণ, অ্যাম্বুলেন্স পরিসেবাদি, চিকিৎসা সরঞ্জাম সরবরাহ ও গ্রামীণ স্বাস্থ্য পরিসেবাগুলোর ক্ষেত্রে বিনিয়োগের প্রচুর সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে যা বিদেশী বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করেছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত