প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

এক লাখ ৪০ হাজার কোটি টাকার বাজেট বরাদ্দের দাবি
শিক্ষা খাতে জিডিপির ৪ শতাংশ বরাদ্দ দেয়া হবে, জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

তরিকুল সুমন : আগামী বাজেট শিক্ষা খাতে বরাদ্ধ বৃদ্ধি পাবে। সরকার বর্তমানে বাজেটের প্রায় ১১ দশমিক ৪১ শতাংশ এবং জিডিপির দুই দশমিক দুই শতাংশ শিক্ষা খাতে বরাদ্দ দিয়েছে। পর্যায়ক্রমে বরাদ্দের পরিমাণ জিডিপির চার শতাংশ করার পরিকল্পনা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে মুভমেন্ট ফর ওয়ার্ল্ড এডুকেশন রাইটসের আয়োজনে ‘আগামী বাজেট ও শিক্ষা খাত : আমাদের প্রত্যাশা’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক রাশেদা কে চৌধুরী।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার নির্বাচনী ইশতেহারে শিক্ষার মান উন্নয়নে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের অঙ্গীকার করেছে। শিক্ষার জন্য পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দ করতে সরকার আন্তরিক। চলতি অর্থবছরে সরকার অনেকগুলো মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে এরপরও শিক্ষা খাতে পর্যাপ্ত বরাদ্দ দিয়েছে সরকার।

তিনি আরো বলেন, এখানে উত্থাপিত যৌক্তিক দাবীগুলো আগামী বাজেটে বিবেচনা করা হবে। সরকার দেশের সব স্কুলে মিড ডে মিল চালুর চিন্তা করছে। পুষ্টির সঙ্গে মেধার যোগসূত্র রয়েছে। শিশুর পুষ্টিহীনতা দূর করতে কাজ করা হচ্ছে।

রাশেদা কে চৌধুরী বলেন, শিক্ষা কোনো পণ্য নয়। শিক্ষা নিয়ে বাণিজ্য কাম্য নয়। শিক্ষা ক্ষেত্রে বাজেট বরাদ্দ বৃদ্ধির পাশাপাশি বাজেটের যথাযথ ব্যবহার মনিটরিং করা প্রয়োজন।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন মুভমেন্ট ফর ওয়ার্ল্ড এডুকেশন রাইটসের আহ্বায়ক ফারুক আহমেদ আরিফ। তিনি বলেন, শিক্ষাখাতে বরাদ্দ দ্রুত জিডিপির ৫ শতাংশে উন্নীত করা এবং ক্রমান্বয়ে ৭ শতাংশে নেওয়ার দাবি জানান। এছাড়াও ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে এক লাখ ৪০ হাজার কোটি টাকার বাজেট বরাদ্দ চেয়েছেন তিনি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত