প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বোরকা পড়েই ক্রিকেট খেলছেন লাবনী

নিজস্ব প্রতিবেদক: অনেক জল্পনা-কল্পনা শেষে মাঠে গড়াচ্ছে ডিপিএল। ছেলেদের শেষ হয়ে মেয়েদের শুরু হয়েছে। অনেক দিন ধরে ডিপিএল শুরু হবে করে পিছিয়েই যাচ্ছিলো মেয়েদের এই ঘরোয়া লিগ। সেই লিগের দলবদলের সময় দেখা গেলো ইচ্ছা শক্তিকে প্রাধাণ্য দিয়ে বোরকা পড়ে আসা ক্রিকেটার লাবনী আক্তারকে। যিনি ইসলামের অনুশাসন মেনে বোরকা পড়ে ক্রিকেটের খাতায় নিজের নামটি লেখালেন।

বগুড়ার মেয়ে লাবনী। শিশু কাল থেকেই ক্রিকেটের সাথে প্রেম। বাবা চাচার সাথে ক্রিকেট দেখতে দেখতেই মনের কোনে ক্রিকেটার হবার সুপ্ত বাসনা। রক্ষণশীল পরিবার। বাব-ভাইদের গরম চোখ। থোরাই কেয়ার। মেয়ের স্বপ্ন-সারথী হলেন মা। আর কি লাগে!

খেলাঘরের ক্রিকেটার লাবনী আক্তার বলেন, ‘আমার মা আমাকে প্রাইভেট নাম করে স্টেডিয়ামে নিয়ে যেত। আমার বাসা যেহেতু বগুড়ায় ছিল তাই সন্ধ্যা হলেই আমাকে নিয়ে আসতো। আমি মনে করি ইচ্ছা শক্তি থাকলে যে কোন কিছু করা সম্ভব, আর আমার এই ইচ্ছা শক্তি দেখেই আমাকে আমার মা সাপোর্ট করেছেন।’

ময়দানে একজন পেশাদার ক্রিকেটার। তবে মাঠের বাইরে ধর্ম প্রাণ এক মুসলিম নারী। কঠোর ভাবে মেনে চলেন ইসলামিক অনুশাসন। উদাহর হিসাবে ওর অনুপ্রেরণা হাশিম আমলা। ন্যাশনাল ক্যাম্পে নিজের জাত চিনিয়েছেন। এখন জাতীয় দলে ডাক পাওয়ার অপেক্ষা। হতে চান বিশ্ব সেরা অফ স্পিনার। আরও দশ বছর ক্রিকেট নিয়েই থাকতে চান খেলাঘরের এই বোলার।

লাবনী বলেন, ‘একজন ক্রিকেটার হওয়ার মানে এই না যে আমাকে সবসময় প্যান্ট শার্ট বা শর্ট পোষাক পরতে হবে। আমি এই পোষাক পরে খেলেই সবার কাছে পরিচিত হতে চাই।’

ইয়োসরা জাহান নূরের গল্পটা লাবনীর ঠিক উলটা। পরিবার পরিবেশ আর পরিস্থিতি সব কিছুই ছিলো পক্ষে। ভালো লাগা থেকেই ক্রিকেট ভালোবাসা। প্রিমিয়ার খেলছেন কেরাণীগঞ্জের হয়ে। তবে নিজের ক্রিকেট কেরিয়ার নিয়ে খুব একটা আশার আলো দেখছেন না এই নারী।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত