প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দেশের মোট খেলাপি ঋণের চেয়েও বেশি পরিমাণ অর্থ আটকে আছে অর্থঋণ আদালতে

রমজান আলী : ২০১৮ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত খেলাপিঋণের পরিমাণ ৯৩ হাজার ৯১১ কোটি টাকা। দেশের ৬৪ জেলায় অর্থঋণ আদালতে ৫৭ হাজার ৪১৬টি মামলা চলমান রয়েছে। এসব মামলায় জড়িত অর্থের পরিমাণ ১ লাখ ১০ হাজার ৭২৬ কোটি টাকা। গত বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত এসব রিট মামলার সংখ্যা ৫ হাজার ৩৭৬টি। জড়িত অর্থের পরিমাণ ৫২ হাজার ৭৭৫ কোটি টাকা। বড় ঋণখেলাপিরা উচ্চ আদালতে রিট করে স্থগিতাদেশ নিয়ে অন্য ব্যাংক থেকে ঋণ সুবিধা নেন। বিষয়গুলো উল্লেখ করে অর্থঋণ আদালত আইন সংশোধনের ওপর জোর দিয়েছে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, সুপারিশে উল্লেখ করা হয়, অর্থঋণ আদালত আইন, ২০০৩ এর ৩৪(২) ধারা মতে, ঋণগ্রহীতার মৃত্যুর কারণে পারিবারিক উত্তরাধিকার আইন অনুযায়ী স্থলাভিষিক্ত দায়িক ওয়ারিশদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে না। এটি সংশোধন করে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সুপারিশ হচ্ছে, যেহেতু উত্তরাধিকারী ঋণখেলাপির সম্পদ ভোগ করবে। তাই দায়ও তার। এ জন্য ৩৪(২) ধারাটি সংশোধন করে উত্তরাধিকারীরা ঋণগ্রহীতার দায় নেবেন উল্লেখ করে সংশোধনী আনার প্রস্তাব করা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ বলেন, খেলাপি ঋণ আদায়ের বিষয়ে রাজনৈতিক সদিচ্ছা থাকতে হবে। তাছাড়া সময় এসেছে অর্থঋণ আদালত আইনটি পুনর্বিবেচনা করার। এই আইনের ফাঁকফোকর দিয়ে অনেক ঋণখেলাপি পার পেয়ে যাচ্ছে। তাই আইনটি দ্রুত সংস্কার করা উচিত।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত