প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কলকাতার দুই অনুষ্ঠান শেষে ঢাকায় ফিরলেন জেনিফার ফেরদৌস

বিনোদন প্রতিবেদক : এটিএন বাংলায় ‘হারানো সুর’ নামে একটি অনুষ্ঠানের উপস্থাপনা করে বেশ পরিচিতি পান জেনিফার ফেরদৌস। উপস্থাপনার পাশাপাশি মডেলিং ও টিভি নাটকে অভিনয়ও করেন তিনি। কিছুদিন আগে ক্রিকেটার সাব্বির রহমানের সঙ্গে বিস্কুটের একটি বিজ্ঞাপনে মডেল হয়েছেন জেনিফার ফেরদৌস। এছাড়া তিনি বর্তমানে কেন্দ্রীয় সংস্কৃতিক জোটের অর্গানাইজিং সেক্রোটারি এবং বিটিভির প্রিভিউ কমিটির সম্মানিত সদস্য।

সম্প্রতি কলকাতায় দুটি বিশেষ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পান তিনি। ২০ এবং ২১ এপ্রিল এ দুটি অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন তিনি। এ বিষয়ে জেনিফার ফেরদৌস বলেন, শুক্রবার কলকাতার একটি পাঁচতারা হোটেলে বেঙ্গল ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন চেম্বার অব কমার্স (বিএফটিসিসি)-র আজীবন সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠান এবং চতুর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের উদ্বোধনে দুই বাংলার ৫ জন বিশিষ্ট মানুষকে আজীবন সম্মাননা দেয়া হয়েছে।

এ অনু্ষ্ঠানটির একটি পর্ব আমি উপস্থাপনা করি। অভিনেত্রী কবরী সারোয়ারকে চলচ্চিত্রে অবদান রাখার জন্য ‘রাজ রাজ্জাক লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড’ দিয়ে সম্মানিত করা হয়েছে। তার হাতে মানপত্র ও একটি প্লেক তুলে দেন বিশিষ্ট সুরকার দেবজ্যোতি মিশ্র ও অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। অনুষ্ঠানে কলকাতার বর্ষীয়ান অভিনেত্রী সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়কে হীরালাল সেন নামাঙ্কিত আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে।

বিশিষ্ট চলচ্চিত্র নির্মাতা উৎপলেন্দু চক্রবর্তীকে সম্মানিত করা হয়েছে ‘দেবকী কুমার বসু লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড’ দিয়ে। শুরুতে প্রদীপ জ্বালিয়ে এই অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন বাংলাদেশের চিত্রনায়ক আলমগীর, বাংলা ছবির জনপ্রিয় নায়ক প্রসেনজিৎ, মন্ত্রী ব্রাত্য বসু, চলচ্চিত্র পরিচালক শতরূপা সান্যাল ও বিএফটিসিসি’র সভাপতি ফেরদৌসাল হাসান।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহানকে দেয়া হয়েছে বিশেষ ‘ইনফরমেশন কমিউনিকেশন এন্টারটেইনমেন্ট অ্যাওয়ার্ড’।এ সম্মাননা তুলে দেয়া হয় বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজামকে। অন্যদিকে পরের দিন ২১ এপ্রিল ‌রিমঝিম লাইফ টাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানটি হয় কলকাতার রবীন্দ্র সদনে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রখ্যাত গায়িকা হৈমন্তী শুক্লা। এ অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করার পাশাপাশি হৈমন্তী শুক্লা দিদিকে আমি সম্মাননা হাতে তুলে দেয় । ২১ এপ্রিল সন্ধ্যার এ অনুষ্ঠানে চলচ্চিত্রের প্রিয় মুখ আলমগীর, কবরীসহ ভারতের অভিনেতা অর্জুন উপস্থিত ছিলেন। দারুণ একটা অনুভুতি ছিল। কলকাতার মানুষরা খুব সহজে বেশ আপন করে নেন। সেই সাথে প্রখ্যাত গায়িকা হৈমন্তী শুক্লা দিদি বেশ স্নেহ করেছেন আমাকে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত