প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রাজধানীর গুলশানে চাঁদাবাজি বৃদ্ধি, মামলা নিতে পুলিশের গড়িমসি

মুসবা তিন্নি : রাজধানীর গুলশান এলাকায় চাঁদাবাজির ঘটনা বেড়ে গেছে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় হামলার শিকার হচ্ছেন গাড়ি ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে ঠিকাদার পর্যন্ত। ভুক্তভোগিরা জানান, থানায় মামলা এবং পরবর্তীতে কিছু আসামী গ্রেফতার হলেও জামিনে মুক্তি পেয়েই আবার হুমকি দিচ্ছে তারা। একাত্তর টিভি

গত ১০ এপ্রিল পুলিশের গুলশান জোনের অন্তর্ভূক্ত কালশীতে গাড়ি বিক্রির শোরুম বি.জেকারে হামলা চালায় একদল সন্ত্রাসী। স্থানীয় সন্ত্রাসী ডিশ বিল্লাল কিছুদিন ধরে চাঁদা দাবি করছিলো, কিন্তু চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তুচ্ছ ঘটনা সৃষ্টি করে শোরুমে হামলা চালায় সন্ত্রাসী ডিশ বিল্লালের দল। হামলায় প্রতিষ্ঠানটির নিরাপত্তাকর্মীর কান কেটে দেওয়া হয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে। ভাংচুর করা হয় শোরুমের ভেতরে ও বাইরে। প্রতিষ্ঠানটি চাঁদাবাজির মামলা করলে পুলিশ তা নিতে চায় নি। পরে জামিনে মুক্তি পেয়ে অভিযুক্ত ডিশ বিল্লাল আপোষের জন্য চাপ দিতে থাকে।

পরেরদিন ১১ই এপ্রিল গুলশানের ডিপিডিসি অফিসের সামনে পিটিয়ে আহত করা হয় এক ঠিকাদারকে। ভুক্তভোগি ঠিকাদার জানান ডিপিডিসিতে ৯০ লাখ টাকার কাজ পাওয়ার পর থেকেই একটি সংঘবদ্ধ চক্র ৫লাখ টাকা চাঁদার জন্য চাপ দিতে থাকে। এই দুটি ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অভিযুক্তরা পুলিশি হেফাজতে রয়েছে বলে জানান ডিএমপির গণমাধ্যেম শাখার উপ পুলিশ কমিশনার। ভুক্তভোগিরা জানান দ্রুত জামিন পাওয়া এবং সঠিক বিচার না হওয়ার কারণে গুলশান এলাকায় চাঁদাবাজি বেড়েই চলেছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত