প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ন্যাশনাল তাওহীদ জামায়াত প্রায় অপরিচিত একটি গ্রুপ

খালিদ আহমেদ : ইস্টার সানডের প্রার্থনার মধ্যে শ্রীলঙ্কায় আট জায়গায় আত্মঘাতী বোমা হামলা চালিয়ে ২৯০ জনকে হত্যার ঘটনায় দায়ী করা হচ্ছে ‘ন্যাশনাল তাওহীদ জামাত’ নামের প্রায় অপরিচিত একটি উগ্রপন্থি সংগঠনকে। তবে হামলার পর এক দিন পেরিয়ে গেলেও ন্যাশনাল তাওহীদ জামাত-এনটিজে বা অন্য কোনো সংগঠন এ হামলার দায় স্বীকার করেনি।

কারা এই ন্যাশনাল তাওহীদ জামাত? এ প্রশ্নের উত্তর জানার চেষ্টা করেছে বিবিসি।

উৎপত্তি

শ্রীলঙ্কা সরকারের মুখপাত্র সোমবার এক বিবৃতিতে হামলার জন্য এনটিজেকে দায়ী করার আগ পর্যন্ত কম মানুষই এ সংগঠনের নাম শুনেছে। ধারণা করা হয়, স্থানীয় কট্টর ইসলামিক সংগঠন শ্রীলঙ্কা তাওহীদ জামাত (এসএলটিজে) ভেঙে ন্যাশনাল তাওহীদ জামাতের উৎপত্তি। এসএলটিজে নিজেও খুব বেশি পরিচিত সংগঠন নয়। তবে তাদের সাংগঠনিক কার্যক্রম তুলনামূলকভাবে বেশি দিনের।

এ সংগঠনের মহাসচিব আবদুল রাজ্জাক ২০১৬ সালে বৌদ্ধদের বিরুদ্ধে বিদ্বেষ ছড়ানোর অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন। পরে তিনি ক্ষমা প্রার্থনা করেন। গত বছর শ্রীলঙ্কার মাভানেল্লা এলাকার একটি বৌদ্ধ মন্দির গুঁড়িয়ে দেয়ার ঘটনায় এনটিজের নাম আসে।

দুই কোটি ১০ লাখ মানুষের দেশ শ্রীলংকায় মুসলমানদের হার মাত্র ৯.৭ শতাংশ। ফলে ধর্মীয়ভাবে সংখ্যালঘু এ সম্প্রদায়ের মধ্যে আরও ক্ষুদ্র পরিসরে উগ্রপন্থি সংগঠন এনটিজের তৎপরতা সীমাবদ্ধ।
ফেইসবুকে এনটিজের একটি পেইজ আছে। তবে তাতে পোস্ট আসে খুবই কম। তাদের টুইটার পেইজ ২০১৮ সালের মার্চের পর আর আপডেট হয়নি।

তবে ইউটিউবে এনটিজে-মিডিয়া ইউনিট শ্রীলঙ্কা নামে একটি চ্যানেল রয়েছে, যেখানে সিনহলি ভাষায় বেশ কিছু বক্তৃতার ভিডিও রয়েছে।

এই গ্রুপের ওয়েবসাইটও এখন খোলা যাচ্ছে না। তবে রোববারের হামলার আগে বা পরে সেটি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে কি না- তা স্পষ্ট নয়।

 

যোগসূত্র

ইন্টারন্যাশনাল ক্রাইসিস গ্রুপের শ্রীলঙ্কা শাখার পরিচালক অ্যালান কিনান বিবিসি ফাইভ লাইভে বলেন, মাভানেল্লায় বৌদ্ধ মন্দিরে ভাঙচুরের জন্য যে সংগঠনটিকে দায়ী করা হচ্ছিল সেটা এই এনটিজে। সম্পাদনা : সালেহ্ বিপ্লব

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত