প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সন্দেহের তীর শ্রীলঙ্কার তৌহিদ জামাতের দিকে

ডেস্ক রিপোর্ট : শ্রীলঙ্কার ৬টি গির্জা ও অভিজাত হোটেলে ভয়াবহ হামলার ঘটনায় দেশটির ন্যাশনাল তাওহিদ জামাত বা এনটিজে নামক একটি চরমপন্থী ইসলামি সংগঠনকে সন্দেহ করছে পুলিশ। হামলার ১০ দিন আগেই ওই সংগঠনের নাম উল্লেখ করে জঙ্গি হামলার সতর্কতা জারি করেছিলো শ্রীলংকান পুলিশ।ইত্তেফাক।

এএফপির হাতে আসা ওই সতর্কতায় বলা হয়, দেশের বিখ্যাত গির্জায় আত্মঘাতি হামলা চালানোর পরিকল্পনা করেছে এনটিজে।

এ হামলায় ১৮৯ জন নিহত হওয়ার খবর জানা গেছে। হামলায় আহত হয়েছে আরো তিন শতাধিক। নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ওই সতর্কতায় আরও বলা হয়, ‘একটি বিদেশি গোয়েন্দা সংস্থা জানিয়েছে, ন্যাশনাল তাওহিদ জামাত (এনটিজে) কলম্বোর ভারতীয় হাই-কমিশন ও বিখ্যাত গির্জায় আত্মঘাতি হামলা চালাতে পারে।’

সতর্কতাটি ১১ এপ্রিল জারি করা হয়েছিলো বলে জানিয়েছেন শ্রীলঙ্কার পুলিশ প্রধান পুজুথ জয়াসুন্দরা।

ন্যাশনাল তাওহিদ জামাত এর আগে শ্রীলঙ্কায় বৌদ্ধমূর্তি ধ্বংস করার ঘটনায় আলোচনায় এসেছিলো।

শ্রীলংঙ্কার প্রতিরক্ষামন্ত্রী রুয়ান উইযেওয়ারদানে বিবিসিকে বলেন, ‘জড়িত সবাইকে বিচারের মুখোমুখি করা হবে। তারা যেই ধর্মের উগ্রপন্থীই হোক না কেন, কেউই রেহাই পাবে না।’

শ্রীলঙ্কার অর্থনৈতিক সংস্কার বিষয়ক মন্ত্রী হার্ষা ডি সিলভা বলেন, ‘যারা ইতিপূর্বে অভিযুক্ত হয়েছিলো এবং পালিয়ে বেড়াচ্ছিলো তারাই এ হামলার সঙ্গে জড়িত।’

রবিবারের হামলাটি কোচকিকাদে, কাতুয়াপিটিয়া ও বাট্টিকালোয়া নামক স্থানের তিনটি গির্জায় চালানো হয়। এছাড়া দেশটির রাজধানীর অভিজাত তিনটি হোটেল সাংগ্রি লা, দ্য কিন্নামোন এবং কিংসবারি তিনটি হোটেলেও বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রথম বিস্ফোরণটি কলম্বোর সেন্ট এন্থনি চার্চ ও কাতুয়াপিটিয়ার সেন্ট সেবাস্থিয়ান চার্চে ঘটে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত