প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পবিত্র শবে বরাতের রাতে রাজধানীর মসজিদগুলোতে মুসল্লিদের ভিড়

সুজন কৈরী ও সুমন পাইক : পবিত্র শবে বরাত উপলক্ষে এশার নামাজে রাজধানীর মসজিদগুলোতে মুসল্লিদের ঢল নেমেছে। বাড়তি মুসল্লির চাপ সামলাতে কোথাও কোথাও মসজিদের ছাদ, পাশের সড়কেও নামাজ আদায়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

রাত জেগে মুসল্লিরা যাতে এবাদত করতে পারেন সে লক্ষ্যে শবে বরাতের তাৎপর্য নিয়ে আলোচনা, খতমে কোরআন, মিলাদ, কিয়াম, জিকির, তাহাজ্জুতসহ বিভিন্ন ধরনের নফল নামাজ, মোনাজাতের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

রোববার রাতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় সরেজমিনে ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

বায়তুল মোকাররম মসজিদের সামনে কথা হয় মো. আউয়াল হোসেন নামের এক কলেজ ছাত্রের সঙ্গে। তিনি জানান, আজ মুসলমান ধর্মাবলম্বীদের জন্য পবিত্র একটি রাত। এ রাতে জেগে ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা আল্লাহর নৈকট্য লাভের আশায় এবাদত বন্দেগী করে। আউয়ালও এবাদতের জন্য মসজিদে গিয়েছেন।

পুরান ঢাকার নয়বাজারের বায়তুল মামুর জামে মসজিদে ষাটোর্ধ্ব মো. মোশারফ হোসেন বলেন, এ রাতে আল্লাহু তায়ালা বান্দাদের গুনাহ মাফ করে জাহান্নাম থেকে মুক্তি দেন। এবাদত বন্দেগী করে ক্ষমা প্রার্থনার মাধ্যমে ভবিষ্যতে পরিশুদ্ধ জীবনযাপনের জন্য আল্লাহর অনুগ্রহ লাভের আশায় মসজিদে এসেছি। আল্লাহ তায়ালা সবার প্রার্থনা যেন কবুল করেন।

নারিন্দা হলুদ মসজিদের সামনে কথা হয় পাভেল আহমেদের সঙ্গে। তিনি বলেন, এই ফজিলতের রাতে পাপ-পঙ্কিলতায় জর্জরিত কোনো ব্যক্তির জন্য খাঁটি তওবা করলে আল্লাহ তালা সেটা কবুল করে নেন। এ রাতে আল্লাহ পরবর্তী বছরের জন্য মানবজাতির রিজিক ও সবার ভাগ্য নির্ধারণ করেন। এ রাতেই যারা পরবর্তী বছরে জন্মগ্রহণ ও মৃত্যুবরণ করবে, তাদের তালিকা করা হয়। এ রাতে মুসলমানরা আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করবে; যারা রিজিক অনুসন্ধানকারী, তারা প্রার্থনা করবে রিজিকের জন্য। বিপদ থেকে উদ্ধার পাওয়ার জন্য প্রার্থনা করবে বিপদগ্রস্ত মানুষ। ইসলামের নবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) এই রাতে নফল ইবাদত-বন্দেগিতে নিমগ্ন থাকতে মুসলমানদের নির্দেশনা দিয়ে গেছেন। এই রাতে আল্লাহ তাআলা তাঁর বান্দাদের জন্য উন্মুক্ত করে দেন রহমত ও দয়ার ভান্ডার। তাই মুসলিম সম্প্রদায়ের কাছে এটি উৎসবের রাতও বটে।

তিনি আরো বলেন, পবিত্র শবে বরাতে নিজের জন্য প্রার্থনার পাশাপাশি আমরা দেশ ও বিশ্বমানবতার মঙ্গলেও সর্বশক্তিমান আল্লাহর করুণা প্রার্থনা করব। এই রাতের কল্যাণে সবার আগামী দিনগুলো সুন্দর ও মঙ্গলময় হয়ে উঠুক এটাই আমাদের কামনা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত