প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘বীরচক্র’সন্মান পেতে যাচ্ছেন ভারতীয় বৈমানিক অভিনন্দন

রাশিদ রিয়াজ : পাকিস্তানের মাটিতে মিগ-২১ যুদ্ধ বিমান ভূপাতিত হবার পর আটক হবার পর ভারতীয় বিমান বাহিনীর বৈমানিক অভিনন্দন বর্তমান দেশে ফেরার পর তাকে বীরচক্র সন্মান দেয়ার সুপারিশি করা হয়েছে। ভারতের বিমান বাহিনী এ প্রস্তাব দিয়ে বলেছে পাকিস্তানের মাটিতে দাঁড়িয়ে একবারের জন্যও তাঁকে ভেঙে পড়তে দেখা যায়নি। বরং দেশের জন্য বুক চিতিয়ে নিজের দায়িত্ব পালন করে গিয়েছেন তিনি।

‘পরমবীর চক্র’ ও ‘মহাবীর চক্রে’র পর ‘বীরচক্র’ দেশের তৃতীয় গুরুত্বপূর্ণ একটি সম্মান। পুলওয়ামাকা-ের পর বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইক করে ভারতের বিমান বাহিনী। আর তার পরদিনই গত ২৭ ফেব্রুয়ারি মিগ ২১ বাইসন ফাইটার জেটের সাহায্যে পাকিস্তানের এফ-১৬ জেটকে ধ্বংস করেন অভিনন্দন। পাকিস্তান এ দাবি নাকচ করে দেয়। এমন কি যুক্তরাষ্ট্র কোনো পাকিস্তানি এফ-১৬ বিমান ধ্বংস হয়নি বলে জানায়।

পাকিস্তানে আটক হবার আগেই অভিনন্দন তার কাছে থাকা সমস্ত দরকারি নথি খেয়ে ফেলেন। চোখে চোখ রেখে পাক সেনার মোকাবিলা করেন। জেনেভা চুক্তি অনুযায়ী, তাকে ফিরিয়ে দেয় পাকিস্তান। দেশে ফিরে কিছুদিন কাজের বাইরে থাকলেও আবার বিমান বাহিনীতে যোগ দিয়েছেন তিনি। জানা গিয়েছে, অভিনন্দনের নিরপত্তার কথা মাথায় রেখে তাকে কাশ্মীর থেকে পশ্চিম ভারতের অন্য একটি বায়ুসেনা ঘাঁটিতে বদলি করা হয়েছে।

পরমবীর চক্র এবং মহাবীর চক্রের পর যুদ্ধক্ষেত্রে সাহসিকতার জন্য সেনার তৃতীয় সর্বোচ্চ সম্মান বীর চক্র। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের একটি সূত্রের খবর, অভিনন্দন ছাড়া ওই সুপারিশের তালিকায় রয়েছেন বায়ুসেনার আরও ১২ জন মিরাজ ২০০০ যুদ্ধবিমানচালক। বায়ুসেনা পদকের জন্য তাদের নাম ভারত সরকারের কাছে সুপারিশ করা হয়েছে।

রাজস্থানের স্কুলেও তার বীরগাথা পড়ানো হবে বলে ইতিমধ্যেই উদ্যোগী হয়েছে সে রাজ্যের সরকার। স্কুলের সিলেবাসে অভিনন্দনের বীরত্বের কাহিনি অন্তর্ভুক্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন রাজস্থানের শিক্ষামন্ত্রী। টাইমস অব ইন্ডিয়া

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত