প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

এই সরকারকে অপসারণ করে গণতান্ত্রিক সরকার ব্যবস্থায় ফিরিয়ে আনতেই আমরা শপথ নিচ্ছি, বললেন দুদু

সাজিয়া আক্তার : আমরা শপথ নিচ্ছি, এই সরকারকে অপসারণ করে গণতান্ত্রিক সরকার ব্যবস্থা ফিরিয়ে আনার জন, রোববার (২১ এপ্রিল) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও যুগ্ম-মহাসচিব হাবিব উন-নবী খান সোহেলের মুক্তির দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন। বাংলা ট্রিবিউন

এসময় তিনি আরো বলেছেন, সংসদে শপথ আর প্যারোলের কথা বলে কোনও লাভ নাই। আমাদের শপথ হচ্ছে মুক্তিযুদ্ধে আমরা যা অর্জন করেছি – গণতন্ত্র এবং আইনের শাসন, এটা ঐক্যফ্রন্ট এবং বিএনপি ফিরিয়ে আনবে।

শামসুজ্জামান দুদু হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘আমরা শপথ নিয়েছি যে কোনও ভাবে যে কোনও মূল্যে, যে কোনও আন্দোলনে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার। আপনারা (সরকার) যদি না দিতে না পারেন সেটা আপনাদের হীনমন্যতা। কিন্তু বাংলার মানুষ যদি একবার জেগে ওঠে আপনাদের অবৈধ শাসন তছনছ করে ফেলবে। খালেদা জিয়াকে তারা কারাগার থেকে মুক্ত করে আনবেই।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘আসুন আমরা এই মাসে শপথ গ্রহণ করি, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারের জন্য শপথ গ্রহণ করি।

বিএনপির এই শীর্ষনেতা বলেন, বর্তমান দেশে যে পরিস্থিতি চলছে সেখানে বলা যায়, দেশে কোনও জবাবদিহিমূলক শাসন নেই। আইনের শাসন নেই। মানুষের নিরাপত্তা নেই, ভীতিকর একটা পরিস্থিতির মধ্যে মানুষ জীবন যাপন করছে। খালেদা জিয়া বাংলাদেশের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী। তিনি কোনও নির্বাচনে পরাজয় বরণ করেন নাই। যখন যেখানে দাঁড়িয়েছেন সেখানেই বিজয়ী হয়েছেন। শুধুমাত্র তাকে নির্বাচন থেকে বাইরে রাখার জন্য, তার দলের বিজয়কে আত্মসাৎ করার জন্য এ সরকার গত নির্বাচনে যে অপকর্ম করেছে তা দিনের আলোতেও করেছে রাতের গভীরেও করেছে।

ছাত্রদলের সাবেক এই সভাপতি অভিযোগ করে বলেন, বর্তমানে যে পরিস্থিতি মনে হচ্ছে খালেদা জিয়াকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে। তাকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে না। তার ন্যায্য পাওয়া জামিন যেটা সংবিধানে স্পষ্টভাবে বলা আছে সেটা দেওয়া হচ্ছে না। চিকিৎসার জন্য তাকে বারবার হাইকোর্টের দ্বারস্থ হতে হয়েছে। হাইকোর্টের নির্দেশনার পরও সরকার এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সে চিকিৎসা বন্ধ করে রেখেছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত