প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যৌন হয়রানিকে কম গুরুত্ব দেয়া হয়, বললেন অধ্যাপিকা তাসলিমা

কেএম নাহিদ : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক তাসলিমা ইয়াসমিন বলছেন, পূর্ণাঙ্গ নীতিমালা প্রণয়নের এবং সচেতনতার অভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যৌন হয়রানি বেড়েই চলেছে৷ সচেতনার উপর বাধ্যবাধকতা ছিল (ওই নীতিমালায়)৷ প্রাইভেট ইউনিভার্সিটিতে দু-একটা ছাড়া প্রপারলি বাস্তবায়ন হয়নি৷ কয়েক জায়গায় কাগজে কলমে তৈরি করে রাখলেও অনেক জায়গায় তা-ও নেই, রোববার ডয়চে ভেলেকে তিনি এসব কথা বলেন৷

তিনি বলেন, প্রত্যেকটা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে, মাদ্রাসা স্কুল বিশ্ববিদ্যালয় যাই বলেন, আমরা যৌন হয়রানিকে কম গুরুত্ব দিই৷ মনে করি, এটা কোনো ব্যাপার নয়। শিক্ষকের ভালনারেবল হতে পারে, এই কালচারটাই আমাদের ডেভেলপ করেনি৷

তিনি বলেন, পূর্ণাঙ্গ নীতিমালা এবং সচেতনতার অভাবে যৌন হয়রানি বাড়ছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানি প্রতিরোধে ২০০৯ সালে একটি যুগান্তকারী নির্দেশনা দেন উচ্চ আদালত ৷ নির্দেশনায় বলা হয়, কর্মক্ষেত্র এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষের দায়িত্ব যৌন হয়রানি প্রতিরোধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা৷

সচেতনতা বৃদ্ধি, কমিটি গঠন ও আইনের প্রয়োগের বিষয়টি শিক্ষার্থীদের অবহিতকরণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে নির্দেশও দেওয়া হয় সেই সময় ৷ যৌন হয়রানির ঘটনা ঘটলে বিদ্যমান আইনে এবং প্রাতিষ্ঠানিক বিচার নিশ্চিত করার কথাও বলা আছে, যেটি কর্মক্ষেত্রের যেকোনো প্রতিষ্ঠানের জন্যও প্রযোজ্য৷

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত