প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ওয়াসার পানি বিশুদ্ধ, এ আস্থা নেই, বললেন বুয়েটের ওয়াটার রিসোর্স বিভাগের অধ্যাপক

ফাতেমা ইসলাম : ওয়াসার সরবরাহ করা পানি সম্পর্কে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যশনাল বাংলাদেশ এক জরিপ প্রকাশ করে। সেখানে বলা হয় যে, ওয়াসার পানি ফুটিয়ে পরিশোধিত করতে গিয়ে প্রতি বছর কয়েকশো কোটি টাকার গ্যাস অপচয় হয়। শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা ওয়াসার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তাদের সরবরাহ করা পানি শতভাগ সুপেয়। বুয়েটের ওয়াটার রিসোর্চ ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক আতাউর রহমান রোববার বিবিসির সাথে আলাপে বলেন, ওয়াসার পানি যে বিশুদ্ধ সেই আস্থাটাই আমাদের নেই, তাই আমরা পানিটা ফুটিয়ে পান করি।

তিনি বলেন, ওয়াসা যখন পানি উত্তোলন করে তখন পানিটা শতভাগ বিশুদ্ধ থাকে। ওয়াসা যখন সরবরাহ করে সরবরাহ লাইনে, রিজার্ভ ট্যাংক পর্যন্ত পানির লাইন ভালো হয়, তাহলে পানিটা শতভাগ ভালোই আসবে। তারপরেও আমি খারাপ পানি পেতে পারি যদি আমার বাসার রিজার্ভ ট্যাংক দূষিত থাকে। অথবা বাসার যে সরবরাহ লাইন আছে সেখানে কোন সমস্যা থাকে।

তিনি বলেন, এখানে দুজনের দায়িত্ব, একটা ওয়াসার আর একটা ভোক্তাদের। ওয়াসার উত্তোলন পর্যন্ত ঠিক আছে, এরপরে সরবরাহ করতে গিয়ে সমস্যা হয় পাইপগুলো কখনো রাস্তা খোড়াখুঁড়ির কাজে। অবৈধ লাইন মেশিন দিয়ে পাইপ ছিদ্র করা, যে কোন কারণে পাইপের মধ্যে ময়লাটা দূষিত পানি যখন ঢুকে যায় তখন পুরো পানিটা দূষিত হয়ে যায়।

তিনি আরো বলেন, যেখান থেকে পানি সরবরাহ করা হয় সেটা এনশিওর করা ওয়াসার পক্ষে একটু ডিফিকাল্ট। এ অবৈধ কানেকশন যখন দেয়া হচ্ছে তখন লিকেজে একটা ময়লা যাওয়াই যথেষ্ট। এই সমস্যার যদি সমাধান করা যায়, তাহলে ট্যাপ ওয়াটার আমরা সেফ ওয়াটার হিসাবে পান করতে পারবো।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত