প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নুসরাত হত্যার ঘটনায় মানি লন্ডারিংয়ের তথ্য পেয়েছে সিআইডি

মহসীন কবির: নুসরাত জাহান রাফিকে যৌন নিপীড়ন ও হত্যার ঘটনায় মানি লন্ডারিংয়ের তথ্য পেয়েছে সিআইডি। শনিবার সকালে সিআইডি এ তথ্য জানান। এরইমধ্যে ওই ঘটনায় অর্থ লেনদেনে বেশ কয়েকজনের সংশ্লিষ্টতা পেয়েছে বলেও জানা গেছে। সম্প্রতি এ সংক্রান্ত সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে বিষয়টি অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

হত্যাকাণ্ড ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে কিংবা ঘটনা ধামাচাপা দিতে কোনো অবৈধ লেনদেন হয়েছে কিনা, কিংবা কে বা কারা এসব লেনদেনের সঙ্গে জড়িত সেসব খুঁজে বের করতে কাজ শুরু করছে সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইম ইউনিট।

নুসরাতের যৌন নিপীড়নের মামলায় অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলা গ্রেফতার হওয়ার পর তার মুক্তি দাবিতে মাঠে নেমেছিলেন অনুসারীরা। নুসরাত হত্যাকাণ্ডে অর্থ লেনদেন হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। ওই ঘটনায় সত্যিকার অর্থে কোনো ধরনের আর্থিক লেনদেন ছিল কিনা তা যাচাই করা হবে বলে জানিয়েছে সিআইডি। একইসঙ্গে অর্থের উৎস কিংবা যোগানদাতা থাকলে তার খোঁজও করা হবে। সিআইডির সিনিয়র সহকারী বিশেষ পুলিশ সুপার শারমিন জাহান এ সংক্রান্ত তদন্ত বিষয়টি সংবাদমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে মাদ্রাসাছাত্রী রাফিকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় সরাসরি জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে উম্মে সুলতানা পপি। আদালতে দেওয়া জবানবন্দিতে পপি জানিয়েছে, নুসরাতের গায়ে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যার আগে তাকে (নুসরাতকে) ছাদে ডেকে নিয়ে গিয়েছিল সে। এরপর কিলিং মিশনে অংশ নেওয়ার কথাও স্বীকার করেছে পপি।

শুক্রবার ফেনীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম শরাফ উদ্দিন আহম্মেদের আদালতে ১৬৪ ধারায় এই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে এসব তথ্য জানিয়েছে পপি। সে রাফিকে যৌন হয়রানির মামলায় জেলে থাকা ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলার ভাগ্নি এবং একই মাদ্রাসার শিক্ষার্থী।

পিবিআই সূত্র জানায়, জবানবন্দিতে উম্মে সুলতানা পপি ওরফে শম্পা স্বীকার করে বলেন, নুসরাত হত্যাকাণ্ডের তিনটি সভার মধ্যে প্রথমটিতে সে ও মণি উপস্থিত ছিল। হত্যাকাণ্ডের সময় পপি ও মনি হাত বাঁধে জাবেদ ও যোবায়ের কেরোসিন ঢেলে আগুন দেয়। পরে তারা পরীক্ষার হলে অবস্থান করে। নুর উদ্দিন ও হাফেজ আবদুল কাদের তাদের নানাভাবে উৎসাহ দিয়েছে।এর আগে গত ৯ এপ্রিল শম্পা সন্দেহে সোনাগাজী উপজেলার মঙ্গলকান্দি ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামের শহিদুল ইসলামের মেয়ে উম্মে সুলতানা পপিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সে একই মাদরাসা থেকে এবার আলিম পরীক্ষার্থী।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত