প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

এপ্রিলের শেষে দেশে ফিরতে পারেন ওবায়দুল কাদের, নিয়মিত করছেন হাঁটাচলা

সমীরণ রায়: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সিঙ্গাপুরের চিকিৎসার পর এপ্রিলের শেষদিকে দেশে ফিরতে পারেন। তিনি সিংগাপুরে ভাড়া বাসার আশেপাশে ও পার্কে নিয়মিত হাঁটাচলা করছেন।

সোমবার সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রণালয়ের উপ-প্রধান তথ্যকর্তা আবু নাছের বলেন, তিনি (ওবায়দুল কাদের) এখন ভালো আছেন। তবে ডাক্তাররা যেদিন বলবেন তিনি সেদিনই দেশে ফিরবেন।

এর আগে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ডাক্তাররা আগে জানিয়েছিলেন ওবায়দুল কাদের মধ্য এপ্রিলে দেশে ফিরে যেতে পারবেন। সে হিসেবে এখন তার দেশে আসার কথা। তবে এ সপ্তাহে তিনি আর আসছেন না। তবে চলতি মাস শেষের দিকে তিনি যেকোন দিন দেশে ফিরতে পারেন এমন সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন সেখানে থাকা মন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ একজন জানান, ওবায়দুল কাদের এখন প্রতিদিন একটু আধটু হাঁটছেন। আশেপাশে থাকা ঘনিষ্ঠজনদের সঙ্গে কথা বলে সময় পার করছেন। আর প্রতিদিন ভোরে ঘুম থেকে ওঠা তার দীর্ঘদিনের অভ্যাস। সে হিসেবে ভোরের আলো ফুটবার সঙ্গে সঙ্গে তার দিন শুরু হয়। তার সঙ্গে সার্বক্ষণিক থাকছেন তার স্ত্রী ইসরাতুন্নেসা কাদের। এছাড়া ব্যাক্তিগত চার কর্মকর্তা তাকে দেখাশুনা করছেন।

গত ২০ মার্চ সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ওবায়দুল কাদেরের বাইপাস সার্জারি সম্পন্ন হয়। সার্জারি করবেন তার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের সিনিয়র সদস্য কার্ডিওথোরাসিক সার্জন ডা. সিবাস্টিন কুমার সামি। ডা. ফিলিপ কোহে এই চিকিৎসা বোর্ডের নেতৃত্বে ছিলেন। এখনো ওই চিকিৎসকের কাছে নিয়মিত যাওয়া আসা করছেন ওবায়দুল কাদের।

গত ৩ মার্চ ভোররাতে ঢাকায় নিজ বাড়িতে শ্বাসকষ্ট শুরু হলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন ওবায়দুল কাদের। সেখানে এনজিওগ্রাম করা হলে তার হৃৎপিণ্ডের রক্তনালীতে তিনটি ব্লক ধরা পড়ে। এরমধ্যে একটি ব ক অপসারণ করেন চিকিৎসকরা। পরের দিন ঢাকায় আসেন ভারতের প্রখ্যাত চিকিৎসক দেবী শেঠী। তারই পরামর্শে ৪ মার্চ বিকেলে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে তাকে সিঙ্গাপুরে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত