প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আবদুল্লাহ ও মুফতি জম্মু-কাশ্মীরের তিন প্রজন্মকে ধ্বংস করেছে বললেন, মোদী

লিউনা হক: জম্মু-কাশ্মীরের জন্য আলাদা প্রধানমন্ত্রী থাকতে পারেনা কারন এটি ভারতেরই একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ বললেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মোদী রোববার জম্মু-কাশ্মীরের সদর-ই-রিয়াসাত (রাষ্ট্রপতি) এবং ওয়াজিরি-ই-আজম (প্রধানমন্ত্রী) নামে রাষ্ট্রীয় পদ দুইটি আলাদা করার সম্ভাবনা বাতিল করে দেন।

তিনি স্থানীয় নেতৃত্বকে অভিযুক্ত করে বলেন, আবদুল্লাহ এবং মুফতির পরিবার বিভাজনকে উৎসাহিত করে পরিবারতন্ত্র শাসনকে চিরস্থায়ী করার পায়তারা করছে।

এক দেশে দুইজন প্রধানমন্ত্রী, দুইটি পতাকা, দুইটি সংবিধান থাকতে পারেনা। আামদের প্রতিশ্রুতি যা ভারতীয় জনসংঘের প্রতিষ্ঠাতা শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় করেছেন সেটিই আমাদের মূল সমাধান, মোদীর বরাত দিয়ে বার্তাসংস্থা পিটিআই উল্লেখ করে।

‘আবদুল্লাহ্ ও মুফতি জম্মু-কাশ্মীরের তিন প্রজন্মকে ধ্বংস করেছে। তাদের প্রস্থানের পরেই রাজ্যের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ নিশ্চিত হবে। তারা তাদের পুরো পরিবারকে রাজনীতিতে প্রবেশ করিয়েছে, তারা যততত্র মোদীকে হ্যস্তন্যস্ত করছে। কিন্তু তারা দেশকে বিভক্ত করতে পারবেনা,’ গতবছর অনুষ্ঠিত জম্মু কাঠুয়ার একটি সম্মেলনে বলেছিলেন মোদী।

জম্মু ও কাশ্মীর জাতীয় সম্মেলনের চেয়ারম্যান ফারুক আবদুল্লাহ এবং তার ছেলে ওমর আবদুল্লাহ সংবিধানুযায়ী জম্মু-কাশ্মীরের প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতি পদ দুইটি পুনর্বহালের দাবি জানিয়ে দলীয় লক্ষ্যে কথা বলেন গত সপ্তাহে।

বিজেপির সবসময়ের প্রচেষ্টা হলো সংবিধানের ৩৭০ এবং ৩৫এ ধারা বাতিল করে দেবার। এ ধারাবলে জম্মু-কাশ্মীরকে বিশেষ অবস্থান দিয়েছে। বিজেপি এই বিষয়ে রাজনৈতিক বিতর্কের অবতারণা করেছে। এই ধারাগুলোকে আদালতে চ্যালেঞ্জ জানানো হয়েছে। সুশীলসমাজ, রাজনীতিবিদ, বিচ্ছিন্নতাবাদী সকলেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে জড়িয়ে গেছেন।

অন্যদিকে কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি বলেছেন, মোদী নির্বাচনে জেতার জন্য একধরনের মনস্তাত্ত্বিক ভীতি সঞ্চার করছেন কাশ্মীরের জনগণের মধ্যে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত