প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

একটি আসন ফাঁকা, নুসরাত নেই…

আহমেদ শাহেদ : সবাইকে কাঁদিয়ে চিরনিদ্রায় শায়িত হয়েছেন ফেনীর সোনাগাজীর অগ্নিদগ্ধ মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি। স্থানীয় ছাবের সরকারি পাইলট উচ্চবিদ্যালয় মাঠে জানাজা শেষে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তাঁর মরদেহ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। এর আগে বুধবার রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। নুসরাতের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে হত্যার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি উঠেছে দেশজুড়ে। ছবিগুলো বৃহস্পতিবারের—-

 

আগুনে দগ্ধ হয়ে না ফেরার দেশে চলে যাওয়া নুসরাত জাহান রাফির সবকিছু এখন স্মৃতির পাতায় বন্দী।  শখের মধ্যে অন্যতম ছিলো লেখালেখি। নুসরাতের পড়ার ঘরের দেয়ালে লেখা রয়েছে বিভিন্ন কথা, বিশেষ করে মাকে নিয়ে বিভিন্ন লেখা।

পরীক্ষা দিচ্ছেন অন্যসব সহপাঠীরা।  সবাই ছুটছে স্বপ্নের পিছু। শুধু থেমে গেছেন নুসরাত, পুড়ে গেছে স্বপ্ন তাঁর। সবাই পরীক্ষা দিচ্ছেন, শুধু নুসরাতের আসনটি ফাঁকা।

আলিম পরীক্ষার দু বিষয়ে অংশ নিয়েছিলেন নুসরাত জাহান। বৃহস্পতিবারও পরীক্ষা ছিল তাঁর। শেষ পর্যন্ত জাগতিক কোনো পরীক্ষাই তাঁকে আর স্পর্শ করতে পারল না। পরীক্ষার উপস্থিতির খাতায় নুসরাতের দুটি স্বাক্ষর আছে, বাকিগুলোতে অনুপস্থিত। এরপর থেকে আর খাতায় স্বাক্ষর করতে হবে না নুসরাতকে। কারন সে যে এখন সব কিছুর উর্দ্ধে।

নুসরাতের বইয়ের মলাটে লেখা

“একলা চলো, একলা চলো…, যদি তোর ডাক শুনে কেউ না, তবে একলা চলরে”…।

 

নিহত নুসরাতের বাড়ি। এ ঘরেই থাকতেন তিনি। আজ তাঁর বাড়িতে অনেক মানুষের ভিড়।

নুসরাতের স্বজনদের আহাজারিতে ভারী হয়ে ওঠে বাতাস।

নুসরাতের জানাজায় অংশ নেন হাজারো মানুষ।

 

অন্তিম যাত্রায় আগুনে দগ্ধ মাদ্রাসাছাত্রী নিহত নুসরাত জাহান রাফির মরদেহ।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত