প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কয়েকদিন আগেও টাকা নিলেন ফাতেমার বাবা, বললেন মির্জা ফখরুল (ভিডিও)

শাহানুজ্জামান টিটু ও শিমুল মাহমুদ: বেগম খালেদা জিয়ার সাথে স্বেচ্ছায় কারাবন্দি গৃহপরিচারিকা ফাতেমা দীর্ঘ দিন বেতন না পাওয়ায় মানবেতর জীবনযাপন করছে তার পরিবার। গত ১৩ মাসে পরিবারের দেনা হয়েছে লাখ খানেক টাকা। ফাতেমার বাবা রফিকুল ইসলামের এমন দাবি সর্ম্পূণ ভুয়া এবং বানোয়াট বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, ফাতেমার বাবা কয়েকদিন আগেও আমার আছে এসেছিলো, আমি তাকে টাকা দিয়েছি। এছাড়া চেয়ারপারসনের বাসভবনে দায়িত্বপ্রাপ্তরা প্রতিমাসে তার বেতন দিয়ে দেন এবং খোঁজখবর নেন।

ফাতেমা কবে মুক্তি পাবে জানতে চেয়ে বেসরকারি টেলিভিশনে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রফিকুল ইসলাম বলেন, খালেদা জিয়া জীবনেও ফাতেমাকে কিছু দেবে না, এমনকি কিছু দরকার কিনা জিজ্ঞেসও করবে না। অন্য কেউ দিলে হয়তো পাবে। খালেদা জিয়ার মুখ দিয়ে বের হবে না যে, এই জিনিসটা তোকে দিলাম।

খালেদা জিয়ার ছেলে তারেক রহমান বা তার পরিবারের কেউ ফাতেমার পরিবারের খবর নেয়নি জানিয়ে তিনি বলেন, টাকার অভাবে ফাতেমার দুই ছেলে এখন স্কুল ছেড়ে মাদ্রাসায় যাওয়ার অবস্থায়। বারবার চেষ্টা করেও জিয়া পরিবারের কারো সাথে যোগাযোগ করতে পারছেন না তিনি।

দশবছর আগে ফাতেমার স্বামী মারা যাওয়ার পর, সংসারের হাল ধরতে এলাকার এক পরিচিত ব্যক্তির মাধ্যমে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার বাসভবনে গৃহপরিচারিকা কাজ পান ফাতেমা। বেতন প্রথমে ২ হাজার টাকা থাকলেও বকশিস ছিলো মোটা। পরবর্তিতে বেতন ৫ হাজার করা হয় এবং বেতনের টাকা প্রতিমাসে মানি অর্ডারে যেতো ভোলার গ্রামের বাড়ির ঠিকানায়।

খালেদা জিয়ার সাথে কারাবন্দী ফাতেমা মুক্তি চায়, মুক্তি চায় তার পরিবারও। খালেদা জিয়ার সাথে কারাবন্দী থাকা বাবদ তার বেতন ২ হাজার টাকা থেকে ৫ হাজার টাকা হয়েছিল। বর্তমানে সেই টাকাও না পেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে ফাতেমার পরিবার। দুই সন্তানের পড়ালেখাও এখন বন্ধ হওয়ার পথে…এই হলো খালেদা জিয়া ও জিয়া পরিবারের অবস্থা….

Posted by Mohammad Ali Arafat on Sunday, April 7, 2019

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত