প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চট্টগ্রামে পাহাড়ের বির্পযয় রোধে কোনো সুপারিশ বাস্তবায়িত না হওয়ায় বর্ষার আগমনে প্রশাসন আতঙ্কিত

নুর নাহার : গত ১২ বছরে প্রায় চারশো মানুষের মৃত্যুর পরও প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে চট্টগ্রামে পাহাড়ের ঢালে বাস করছে শত শত পরিবার। প্রশাসনের তথ্য মতে, চট্টগ্রামে ৫০০ বেশি পাহাড় রয়েছে। এর মধ্যে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ ২৮ টি পাহাড়ে বসবাস করছে ৬৬৮টি পরিবার। ২০০৭ সালে ১শ’ ২৭ জন মৃত্যুর পর মহাবিপর্যয় এড়াতে ২৯টি কারণ চিহ্নিত করে পাহাড় ব্যবস্থাপনা কমিটি ৩৬ টি সুপারিশ করে। কিন্তু এখনো একটিও বাস্তবায়িত হয়নি । সময় টিভি

লালখান বাজারের মতিঝর্ণায় বসবাসকারীরা বলেন, জায়গাটা তারা ভুলু কমান্ডার নামে এক লোকের কাছ থেকে বছর ৪০ আগে কিনেছেন।বর্ষাকালে আমরা ১০/১৫ হাজার টাকার ভাড়া বাড়িতে চলে যাই।

পাহাড়ের ঢালে বসবাসরতদের সম্পর্কে জেলা প্রশাসক ইলিয়াস হোসেন বলেন, একরাতের মধ্যে টিনের ঘর তুলে থাকতে শুরু করে তারা। তা সবসময় আমাদের চোখে পড়ে না, ফলে সরিয়ে আনার কাজটিও আমরা করতে পারি না। প্রতিবছর বর্ষার আগে সরিয়ে নেয়া হলেও প্রভাবশালী রাজনৈতিক ব্যক্তিদের ছত্রছায়ায় পুনরায় তারা বসবাস শুরু করে। সূত্র মতে, আসন্ন বর্ষা নিয়ে প্রশাসন আতঙ্কিত।

চট্টগ্রামের বাকলিয়া সার্কেলের সহকারী কমিশনার সাবরিনা আফরিন মোস্তফা বলেন, যারা ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাস করছেন তাদেরকে সরিয়ে নেয়ার ব্যবস্থা করবো। নগর পরিকল্পনাবিদ স্থপতি আশিক ইমরান বলেন, যারা অবৈধভাবে বসবাস করছে তাদের এ জমির উপর কোনো মালিকানা নেই। তারপরও বিদ্যুৎ, পানি ও গ্যাসের সংযোগ পাচ্ছে এক ধরণের প্রভাবশালী মহলের মাধ্যমে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত