প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সড়ক দুর্ঘটনা কমাতে সরকারকে কঠোর হতে হবে, বললেন সৈয়দ আবুল মকসুদ

রুহুল আমিন : লেখক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে সবসময় মানুষের একটা আগ্রহ থাকে। কারণ এই বিশ্ববিদ্যালয় গত ৯৫ বছর ধরে ভাষা আন্দোলন, স্বাধীনতা সংগ্রাম ও দেশের সামগ্রিক সমস্যাগুলোর সমাধান এখান থেকে শেষ হয়েছে। কাজেই এই বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে জনগণের মাঝে ব্যাপক আগ্রহ ছিলো।

শনিবার রাতে এনটিভির এই সময়ে তিনি বলেন, জাতীয় নির্বাচন নিয়ে মানুষের মাঝে যে প্রশ্ন রয়েছে, সে নির্বাচন সুষ্ঠু ছিলো না। একটা গোজামিলের নির্বাচন ছিলো। সবাই ভেবেছিলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্বাচনটা সুষ্ঠু হবে। তাই এই নির্বাচনে সব ছাত্র সংগঠন অংশগ্রহণ করেছে। কিন্তু ভোট কারচুপি ও নানামুখি সমস্যা হয়েছে। যে অভিযোগটা উঠেছে, বস্তার ভেতর ব্যালট পেপার পাওয়া গিয়েছে। কর্তৃপক্ষ এটাকে ধামাচাপা না দিয়ে এগুলোর সুষ্ঠু তদন্ত করা উচিত।

তিনি বলেন, ভোট ছিনতাই এর সাথে কে জড়িত কঠারভাবে বিচার করা উচিত। এগুলোর যদি তদন্ত না হয় তাহলে সামনে যে এমন নির্বাচন হবে না এটার গ্যারান্টি দেয়া যায় না। এ বিশ্বদ্যিালয়ে ভোট ছিনতাই এর কাহিনী কলঙ্ক মেনে নেয়া যায় না। বরাবর এ বিশ্ববিদ্যালয় জাতীয় আন্দোলনের ভূমিকা পালন করে। শিক্ষার্থীদের পুননির্বাচনের দাবি যৌত্তিক। কিন্তু হয়তোবা পুননির্বাচন হবে না।

তিনি আরো বলেন, সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার জন্য সরকার ১৫ সদস্য বিশিষ্ট একটা কমিটি করে দিয়েছে। শেষ পর্যন্ত কোনো শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে পারবে না। যারা পরিবহন মালিক তাদের রাস্তায় কীভাবে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা যায় তাদের চিন্তা করা উচিত। তাদের তো এ ব্যাপারে কোনো মাথা নেই। তাহলে তারা কীভাবে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনবে। কোনো দুর্ঘটনা ঘটলে সরকারের টনক নড়ে। এর আগে সরকার কিছু করে না। কোনো দুর্ঘটনা হলে দুর্ঘটনাকারীকে সরকার বিভিন্ন ভাবে সান্তনা দেয়া হয়। দুর্ঘটনা কমাতে হলে সরকারকে কঠোর হতে হবে। তাদের উচিত হবে নিজেদের লোকদের পেছনে অবস্থান না নিয়ে জনগণের মধ্যে অবস্থান নেয়া।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত