প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘ভোট চোর’ বলে পরস্পরকে দুষলেন আওয়ামী লীগ বিএনপির দু’নেতা

রুহুল আমিন : সময় টেলিভিশনের সম্পাদকীয়তে শনিবার রাতে আলোচক ছিলেন সাবেক চীফ হুইপ উপাধ্যক্ষ আবদুস শহীদ এমপি ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন। সাবেক চীফ হুইপ উপধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ বলেছেন, বিএনপির জন্ম গণতন্ত্রের মধ্যে হয় নাই। তারা সামরিকের পোশাক পরে ক্ষমতায় এসেছে। আর বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন ফারুক বলেছেন, বিএনপির জনপ্রিয়তা অনেক বেশি। তাই সরকার আমাদের তৃণমূল থেকে শুরু করে লাখ লাখ নেতা কর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে রাখা হয়েছে।

উপাধ্যক্ষ আবদুস শহীদ বলেন, যে দলটির চেয়ারপারসন ও দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দÐপ্রাপ্ত আসামী সে দলটি কোনো ভাবেই ভালো হতে পারে না। তাদের মুখে গণতন্ত্রের কথা মানায় না। আওয়ামীলীগ ভোট চুরি করে কখনই ক্ষমতায় আসে নাই। বরং ১৯৭৫ বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর বিএনপিই ভোট চুরি করে ক্ষমতায় এসেছে। বিএনপি বলে, তাদের নামে গায়েবী মামলা হয়েছে। গায়েবী জানায়া হয় এটা জানি কিন্তু গায়েবী মামলাও হয় এটা বিএনপির মুখ হতেই শুনলাম।

তিনি বলেন, দেশ আগের চেয়ে অনেক উন্নত। কয়েক বছরের মধ্যেই আমরা উন্নত দেশের তালিকায় যাব। মানুষ এখন চিন্তা করে ভোট দিয়ে কি লাভ হবে। আওয়ামী লীগের অধীনে দেশ অনেক ভালো আছে। এজন্য মানুষ ভোট দিতে যায় না। গণতন্ত্রের জন্য ভোট একক শর্ত নয়।

অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেছেন, বিএনপির জনপ্রিয়তা অনেক বেশি। তাই সরকার আমাদের তৃণমূল থেকে শুরু করে লাখ লাখ নেতা কর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে রাখা হয়েছে। অনেকে এখনো বাসায় থাকতে পারে না। যাদের নামে মামলা আছে তারা অনেকেই মামলার হাজিরাও দিতে পারে না। এমনকি তাদের দমন পীড়ন এমন পর্যায়ে গেছে যে তারা আমাদের নেতাকর্মীরা হাজিরা দিতে গেলে তাকে গুম করে ফেলা হয়। এমন কোনো নেতা নেই যে প্রশাসনের গুলি খায় নাই।

তিনি বলেন, দেশে গণতন্ত্রের লেশ মাত্র নেই। দেশে এখন চলছে ডাকাতির গণতন্ত্র। প্রশাসন ও গুণ্ডা বাহিনী দিয়ে জোর করে যেকোনো উপায়ে হোক ক্ষমতায় থাকা। আওয়ামী লীগ জানে সুষ্ঠু ভোট হলে কখনোই ক্ষমতায় আসতে পারবে না। তাই তারা ভোট চুরি করে ক্ষমতায় এসেছে। জনগণ আওয়ামী লীগকে পছন্দ করে না। তাই এখন ভোট কেন্দ্রে কোনো লোক পাওয়া যায় না।
তার মতে, স্বয়ং সিইসি বলেছেন, বিএনপি নির্বাচনে আসে না বিধায় মানুষ এখন ভোট দিতে যায় না। তার মানে বিএনপিকে মানুষ অনেক পছন্দ করে না। এজন্য তারা সবসময় বিএনপিকে নিয়ে আতঙ্কে থাকে।

তার মতে, সড়কে এখন শৃঙ্খলা নেই, আছে শুধু চাদাঁবাজি। মাদকে দেশ ভরে গেছে। কোথায় এখন শান্তি নেই। টকশোতে এখন মারামারি ও ঝগড়া হয়। টকশোতে আসলে এখন আগে থেকে চিন্তা করে আসতে হয়। সাংবাদিকরা সত্য কথা বলতে পারে না। তাদেরকে ডিজিটাল আইন দিয়ে বন্ধি করে রাখা হয়েছে। দেশে আইনের শাসন নেই। আওয়ামী লীগ বিধায় না হলে এদেশে শান্তি আসবে না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত