প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পাকিস্তানের আলেমরা টার্গেট কিলিংয়ের শিকার হন বেশি, বললেন আল্লামা শফী

আমিন মুনশি : বিশ্বব্যাপী মুসলমানদের নেতৃত্ব শূন্য করার পায়তাঁরা হচ্ছে- এমন মন্তব্য করে হেফাজতের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী বলেছেন, বিগত দিনেও আততায়ীর গুলিতে পাকিস্তানের অনেক বড় বড় উলামায়ে কেরাম শহীদ হয়েছেন। এ জন্য উম্মাহর রাহবারদের চলাচলের ক্ষেত্রে আরো সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

শুক্রবার পাকিস্তানের শীর্ষ আলেম ও সাবেক বিচারপতি আল্লামা তাকি উসমানির ওপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন।

আল্লামা শফী বলেন, ‘ইহুদী-খ্রিস্টান সন্ত্রাসীরা মুসলমানদের পঙ্গু করে দেয়ার জন্য শীর্ষ উলামায়ে কেরামের ওপর হামলা করছে। মুসলমান যেন নেতৃত্ব শূন্য হয় এই টার্গেট নিয়ে তারা সামনে আগাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় আল্লামা তাকী উসমানীর ওপর হামলা চালানো হয়েছে।’ ভবিষ্যতে এমন ষড়যন্ত্র আরো হতে পারে বলেও গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, বিগত সপ্তাহে জুমার নামাজ চলাকালীন নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দু’টি মসজিদে খ্রিস্টান সন্ত্রাসী হামলা এবং পাকিস্তানের আল্লামা তাকী উসমানির ওপর আক্রমণ একই সূত্রে গাঁথা। পাকিস্তানে আলেমদের টার্গেট কিলিংয়ের প্রবণতা অন্যান্য দেশের তুলনায় বেশি উল্লেখ করে বিবৃতিতে হেফাজতে ইসলামের আমির বলেন, মুসলিম উম্মাহ আজ গভীর সংকটে নিমজ্জিত। ইহুদিরা ফ্রিমেসন নামে গুপ্ত সংগঠন গড়ে তুলে মুসলমানদের শীর্ষ আলেমদের হত্যা করে যাচ্ছে। এই ষড়যন্ত্রের অপকর্ম পাকিস্তানে তুলনামূলক বেশি হয়। মুফতি নেজাম উদ্দিন শামজায়ী, মাওলানা জিয়াউর রহমান ফারুকীসহ অনেক আলেম পাকিস্তানে শহীদ হয়েছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত