প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বলিউড ছবি বন্ধের জেরে ক্ষতির মুখে পাকিস্তানের সিনে মহল

মুসফিরাহ হাবীব : বলিউড ছবির জনপ্রিয়তা পাকিস্তানে প্রবল। কিন্তু সম্প্রতি পাক-ভারত সংঘাত ও কূটনৈতিক পরিবেশ উত্তপ্ত হওয়ার কারণে সেখানে বলিউড ছবির সম্প্রচার বন্ধের জেরে ক্ষতির মুখে পড়েছে সিনেমা হলগুলো।

গত ফেব্রুয়ারিতেই জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলায় ভারতীয় জওয়ানদের মৃত্যুর জেরে তীব্র উত্তেজনার পরিবেশ সৃষ্টি হয় ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে। তার জেরেই পাকিস্তানে বন্ধ হয় ভারতীয় সিনেমার প্রদর্শন৷ আধুনিক প্রজন্মের কাছে যদিও এটি কোনো বিষয় নয়৷ কারণ, তারা সিনেমা হলে না গিয়েও নেটফ্লিক্স, ইউটিউবে বা অন্য প্ল্যাটফর্মে বলিউড ছবি দেখতে পারছেন৷ ফলে পাকিস্তানে ছবির ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়ে আসলে কিছুই বন্ধ করা যাচ্ছে না। কিন্তু সিনেমা হলগুলো এতে নিঃসন্দেহে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে৷

পুলওয়ামায় হামলার পর ভারতে পাকিস্তানি অভিনেতা-কলাকুশলীদের বলিউডে কাজ করায় নিষেধাজ্ঞার জবাবে পাকিস্তানও সেদেশে ভারতীয় সিনেমা বন্ধ করে। এতে ভারতীয় সিনেমা দেখিয়ে পাকিস্তানের সিনেমা হলগুলো যে বিপুল পরিমাণ মুনাফা করে তা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ক্ষতি হচ্ছে হল মালিকদের৷ এর ফলে পাকিস্তানের সাংস্কৃতিক জগতে গুরুত্বপূর্ণ প্রতিক্রিয়া হয়েছে।

বিবিসি’র এক সংবাদদাতার প্রতিবেদনে যে তথ্য উঠে এসেছে তাতে দেখা গেছে, পাকিস্তানে সিনেমা হল আছে প্রায় ১২০টি৷ প্রতিটি ছবি মোটামুটি দু’সপ্তাহ ধরে চলে৷ সিনেমা হলকে ব্যবসায় টিকে থাকতে হলে বছরে অন্তত ২৬টা ছবি দেখাতে হয়। কিন্তু পাকিস্তানের নিজস্ব যে চলচ্চিত্র শিল্প তাতে বছরে মাত্র ১২ থেকে ১৫টি ছবি হয়। এরপর থাকে জনপ্রিয় ভারতীয় সিনেমার ভরসা৷ সেখানেই বলিউড ছবির কৃতিত্ব৷ পাকিস্তানি চলচ্চিত্র শিল্পের ৭০ ভাগ রাজস্বই আসে ভারতীয় সিনেমা প্রদর্শন থেকে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত