প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিদেশি চ্যানেলে বিজ্ঞাপন বন্ধ নিয়ে ভুল তথ্য প্রচার করা হচ্ছে

সাজিয়া আক্তার :২. বাংলাদেশে ডাউনলিংক করে সম্প্রচারিত বিদেশি চ্যানেলে বিজ্ঞাপন প্রচার নিয়ে ভুল তথ্য প্রচার করা হচ্ছে। সরকারের নির্দেশিত আইনে কোনও বিজ্ঞাপন দেখানো যাবে না বলে স্পষ্ট উল্লেখ আছে। অথচ এটাকে শুধু দেশি বিজ্ঞাপন বন্ধের নির্দেশ বলে প্রচার করা হচ্ছে। সরকার যে আইন জারি করেছে, তা যদি সঠিকভাবে উপস্থাপিত না হয়, তবে মিডিয়া শিল্পের এখানে তেমন লাভ হবে না। এজন্য সঠিক আইনটি তুলে ধরতে হবে। শুধু এক তরফাভাবে তথ্য প্রচার করলে আইনের সুষ্ঠু প্রয়োগ সম্ভব হবে না। আর টিভি

৩. অ্যাসোসিয়েশন অব টেলিভিশন চ্যানেল ওনার্সের (অ্যাটকো) বরাতে গণমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, দেশে প্রায় পাঁচ কোটি টিভি গ্রাহকের কাছ থেকে প্রতি বছর প্রায় ২৪ হাজার কোটি টাকা আদায় হয়। এর ওপর ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট দিলে প্রায় তিন হাজার ৬০০ কোটি টাকা সরকারের আদায় হয়, যার একটি বড় অংশ বিদেশি চ্যানেলগুলোর কাছ থেকে আসার কথা। কিন্তু সরকার তা পায় না।

৪. অভিযোগ আছে, বিদেশি চ্যানেলে বিজ্ঞাপন প্রচারের মাধ্যমে দেশের টাকা ‘অবৈধভাবে’ বিদেশে ‘পাচার’ হয়। এ অবস্থায় দাবির মুখে সরকার বাংলাদেশে ডাউনলিংকপূর্বক সম্প্রচারিত সব বিদেশি টিভি চ্যানেলে বিজ্ঞাপন প্রচার অবিলম্বে বন্ধ করার নির্দেশ দেয়। যা ২০০৬ ও পরে ২০১০ সালে গেজেট আকারে প্রকাশ করা হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত