প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সিলেটের ঘরে নারী ক্রিকেটের শিরোপা

স্পোর্টস ডেস্ক : বুধবার কক্সবাজারে এ লিগ শেষ হয়। অবশ্য একদিন আগেই শিরোপা নিশ্চিত হয় সিলেটের। শেষদিনে শুধুমাত্র বাকি ছিল আনুষ্ঠানিকতা। বুধবার শেষদিনে ঢাকা বিভাগ ১৬ রানে রংপুর বিভাগকে ও খুলনা বিভাগ ৪ উইকেটে বরিশাল বিভাগকে পরাজিত করে।

প্রতিযোগিতার ৭ রাউন্ড শেষে ৬ জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে সিলেট বিভাগ। বুধবারের জয়ের ফলে ৭ ম্যাচ থেকে ১০ পয়েন্ট নিয়ে রানার্স আপ হয়েছে ঢাকা বিভাগের মেয়েরা। এছাড়া ৭ ম্যাচে ৪ জয়ে সমান ৮ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানে আছে যথাক্রমে ময়মনসিংহ বিভাগ, খুলনা বিভাগ ও রংপুর বিভাগ। বরিশাল বিভাগ ৬ পয়েন্ট নিয়ে ৬ষ্ঠ স্থানে। ৪ পয়েন্ট নিয়ে রাজশাহী বিভাগের মেয়েদের অবস্থান ৭ম স্থানে। আর ৭ খেলায় কোন জয় না পাওয়া চট্টগ্রাম বিভাগ আছে সবার নিচে।

বুধবার শেষদিনে কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করে বরিশাল বিভাগ ৪৮.১ ওভারে ১৫৬ রান করে অলআউট হয়ে যায়। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৬৭ রান করেন ফারজানা হক পিঙ্কি। খুলনার হয়ে ৪টি উইকেট নেন ফাতেমা আক্তার। জবাবে ব্যাট করতে নেমে খুলনার মেয়েরা শুকতারার ব্যাটে ভর করে ৪০.৪ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায়।

দলের হয়ে আয়েশা রহমান শুকতারা ৭২ বলে করেন ৫৩ রান। এছাড়া অধিনায়ক রুমানা আহমেদ ৩৬ ও সুলতানা ইয়াসমিন বৈশাখী ৩১ রান করেন। বরিশালের নাহিদা আক্তার নেন ৪ উইকেট। দিনের অপর ম্যাচে আগে ব্যাট করে শামীমা সুলতানার অনবদ্য ১০৫ রানে ভর করে ঢাকা বিভাগ নির্ধারিত ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে করে ১৯৩ রান। জবাবে রংপুর বিভাগ নির্ধারিত ওভারে ৯ উইকেটে ১৭৭ রান করতে সমর্থ হয়।

প্রতিযোগিতায় সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রহ করেছেন খুলনা বিভাগের অধিনায়ক রুমানা আহমেদ ও বরিশালের নাহিদা আক্তার। সমান ৭ ম্যাচে দু’জনেই ১৬টি করে উইকেট নেন। ১৫টি উইকেট নেন ময়মনসিংহ বিভাগের স্বর্ণা আক্তার। ১৩টি উইকেট নেন রাজশাহী বিভাগের পান্না ঘোষ।
এদিকে ব্যাটিংয়ে সবার উপরে সিলেট বিভাগের মুর্শিদা খাতুন হ্যাপি। মোট ৪১৪ রান করেন তিনি। ৩৪৫ রান করে পরের অবস্থানে আছেন ময়মনসিংহ বিভাগের নিগার সুলতানা জ্যোতি।
প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেয়া হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত