প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মুগ্ধ করার বদলে বিব্রত হওয়া বোকা কিশোর ও নরেন্দ্র মোদির গল্প

মাসুদ রানা : আমাদের শহরে একবার এক কিশোর কতিপয় কিশোরীকে মুগ্ধ করার উদ্দেশ্যে তার বাইসাইকেলে সরাসরি না চড়ে, সেটি দৌড়ে সামনের দিকে ঠেলে লাফ দিয়ে উঠতে গিয়ে মাটিতে পড়ে যায় আর তা লক্ষ্য করে কিশোরীর দল মুগ্ধ হওয়ার পরিবর্তে দারুণ এক কৌতুক বোধ করে খিলখিল করে হেসে উঠে। এ পরিস্থিতিতে ভূপতিত কিশোরটি সাংঘাতিক অপমানে ও লজ্জায় লাল হয়ে উঠে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অবস্থা হয়েছে ওই পতিত কিশোরটির মতো। কারণ তিনি ভারতের আসন্ন নির্বাচনে ভৌটারদের মুগ্ধ করে ভোট পাওয়ার আশায় পাকিস্তানের আকাশসীমা লঙ্ঘন করে বিমান আক্রমণ চালিয়ে জয়েশ-ই-মুহাম্মদের ঘাঁটি ও কমান্ডারদের ধ্বংস করার কথা ঘোষণা করে শুধু তার প্রমাণ দিতেই ব্যর্থ হননি বরং আজ পাকিস্তানের পাল্টা আক্রমণে মিগ২১ যুদ্ধবিমান হারালেন এবং শত্রুর হাতে ভূপতিত বৈমানিকের বন্দি হওয়ার মধ্য দিয়ে খুবই অপমানকর পরিস্থিতির মধ্যে পড়লেন।
আমি ভাবছি, নরন্দ্রে মোদি গর্ব করার বদলে যে অপমানের মধ্যে পড়লেন, তা কাটিয়ে উঠার জন্য আর কী করতে পারেন? পারমাণবিক বোমা আছে বলেই তো মোদি সাহেব তা পাকিস্তানের দিকে ছুড়তে পারবেন না, কারণ পাকিস্তানেরও রয়েছে তার নিজস্ব পারমাণবিক বোমা। আমার মনে হয়, মোদির জন্য সবচেয়ে ‘স্মার্ট মুভ’ হবে সম্পূর্ণ ১৮০ ডিগ্রিতে ঘুরে শান্তির পক্ষে রাজনৈতিক পদক্ষেপ নেয়া এবং শান্তির অগ্রদূত হয়ে পাকিস্তানের সাথে সন্ত্রাসবিরোধী ঐক্য গড়ে তোলা। যা হোক, সংঘর্ষের মূলে যেহেতু আছে কাশ্মীরের জনগণের ইচ্ছার বিরুদ্ধে তাদের দেশটিকে দু’টি প্রতিদ্বন্দ্বী রাষ্ট্রের অঙ্গিভূত করে রাখা, তাই সমগ্র কাশ্মীরের সম্পূর্ণ স্বাধীনতা ছাড়া এ সমস্যার স্থায়ী সমাধান করা দুরূহ। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত