প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

টাঙ্গাইলের ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস থেকে অস্ত্র উদ্ধার

অলক কুমার দাস, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি আবাসিক হলের চার ছাত্রলীগ নেতার দখলে থাকা একটি কক্ষ থেকে বুধবার রাতে ২টি দেশীয় তৈরী পিস্তল ও ১টি ম্যাগজিন উদ্ধার করেছে পুলিশ।

অভিযানে নের্তৃত্বে থাকা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আল মামুন জানান, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের তথ্য অনুযায়ী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের ২১৪ নম্বর কক্ষে অভিযান চালায় পুলিশ। এসময় ওই কক্ষের লকারের ‘খ’ নম্বর লকার থেকে হলুদ কাপড়ের ব্যাগে রাখা ২টি পিস্তল ও ১টি ম্যাগজিন উদ্ধার করা হয়। পাশাপাশি ২১৫ নম্বর কক্ষে অভিযান চালিয়ে একটি রক্তমাখা সাদা চেক শার্ট উদ্ধার করা হয়। তবে এই ঘটনায় কাউকে আটক করা যায়নি।

অভিযানের সময় কাগমারী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আরিফ ফয়সাল, বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইফ সাইন্স বিভাগের ডীন ড. এস এম সাইফুল্লাহ, ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আওরঙ্গজেব আকন্দ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের ভারপ্রাপ্ত প্রভোষ্ট ড. মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম, জননেতা আব্দুল মান্নান হলের প্রভোষ্ট ড. পিনাকী দে, শহীদ জিয়াউর রহমান হলের প্রভোষ্ট ড. ইকবাল মাহমুদ উপস্থিত ছিলেন।

এই বিষয়ে ওই হলের ভারপ্রাপ্ত প্রভোষ্ট ড. মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম জানান, বুধবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় বিভিন্ন সূত্রে প্রক্টর অফিসে সংবাদ আসে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের একটি কক্ষে অস্ত্র আছে। এর প্রেক্ষিতে আমরা রুমটি সীলগালা করে রাখি ও পুলিশকে খবর দেই। পুলিশ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে ওই কক্ষে অভিযান চালায়। এসময় সেখান থেকে অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। আমরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি সূত্র জানায়, হলের ওই কক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী রাজিব আহমেদ, একই বিভাগের একই বর্ষের শিক্ষার্থী শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ ইমরান রাব্বি ও সাংগঠনিক সম্পাদক জুবায়ের রহমান মিশু, সাংগঠনিক সম্পাদক পরিসংখ্যান বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী শরীফ ভূঁইয়া থাকতো। তারা সবাই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সজীব তালুকদারের সমর্থক। গত ১২ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের অপর একটি পক্ষ সজীব তালুকদারকে কুপিয়ে আহত করে। তারপর থেকেই ওই চার ছাত্রলীগ নেতাকে ক্যাম্পাসে দেখা যায়নি। তাদের তালাবদ্ধ ঘরেই এই অভিযান চালায় পুলিশ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত