প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বালাকোটে কোনো লাশ নজরে পড়েনি, একটি কাক মারা গেছে জানালেন হামিদ মীর

রেজাউল আহসান : পাকিস্তানের বালাকোট সীমান্তে মঙ্গলবার ভোররাতে বিমান হামলা চালানোর পর ভারত দাবি করেছিল, হামলায় তিন শতাধিক লোক নিহত হয়েছে। এ ছাড়া জইশ-ই-মোহাম্মাদের কয়েকটি ঘাঁটি ধ্বংস করা হয়েছে। কিন্তু নয়াদিল্লির এ দাবি যে একটা মিথ্যাচার তা প্রমাণ করেছেন পাকিস্তানের আলোচিত সাংবাদিক হামিদ মীর। বাংলা২৪লাইভ।

জিও টিভির অনলাইনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বুধবার হামিদ মীর ভারতের দাবি করা হামলাস্থল পরিদর্শন করেছেন। সেখান থেকে তিনি টুইটারে একটি ভিডিও পোস্ট করেন।

ভিডিওতে তিনি বলেন, ‘আমি এই মূহুর্তে বালাকোট থেকে ১৯ কিলোমিটার দূরে জাব্বা এলাকায় রয়েছি। এটা সেই জায়গা, দুই দিন আগে যেখানে ভারতীয় বিমানবাহিনী হামলা করেছিল। এখানে স্রেফ একটা হামলার চিহ্ন নজরে এসেছে। তা হলো- একটা বাড়ি যার কিছু অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং বাড়ির মালিক নুরান শাহ সামান্য আহত হয়েছেন।’

এর আগে পাকিস্তানের পক্ষ থেকেও ভারতের দাবিকে মিথ্যা বলা হয়েছিল। এমনকি স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমকেও ঘটনাস্থল পরিদর্শনের আহ্বান জানিয়েছিল ইসলামাবাদ। সেই আহ্বানে সাড়া দিয়েই আলোচিত সাংবাদিক ও টেলিভিশন উপস্থাপক হামিদ মীর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

পোস্ট করা ভিডিওতে তিনি বলেন, ‘ভারত বলছে, এখানে জইশ-ই-মোহাম্মদের প্রশিক্ষণ ক্যাম্প ছিল। কিন্তু এখানে তেমন কিছু নজরে আসেনি। ভারত দাবি করছে, তাদের হামলায় তিন শত থেকে সাড়ে তিন শত লোক মারা গেছে, কিন্তু এখানে কোনো লাশ নজরে পড়েনি। কোনো জানাজা হয়নি, এমনকি কোনো রক্ত চোখে পড়েনি।’

‘তবে হ্যাঁ, এখানে একটা লাশ নজরে এসেছে, আর তা হলো একটা কাকের লাশ। আর এই কাকের হত্যাকারী হচ্ছে ভারতীয় বিমানবাহিনী।’

প্রসঙ্গত, আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোও ভারতের দাবি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। যুক্তি দিয়ে তারা দেখিয়েছে, নয়া দিল্লির ওই দাবি স্রেফ একটা রাজনৈতিক চাপাবাজি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত