প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নির্বাচনটা আরো ভালো হতো যদি বিএনপি আসতো : ভোট দিয়ে আতিকুল

ইমরান মিয়া : ঢাকা সিটি উপ-নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন উত্তর সিটি কর্পোরেশনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম। বৃহস্পতিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টায় উত্তরার নওয়াব হাবিবুল্লাহ মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ১২ নম্বর কেন্দ্রে ভোট প্রদান করেন তিনি। এসময় তার স্ত্রী ও কন্যা সঙ্গে ছিলেন। জাগো নিউজ।

এসময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদে উপ-নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিলে ভালো হতো।

বিএনপি এ নির্বাচনে অংশ না নেয়ায় নির্বাচন কতটুকু প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘নির্বাচনে আরেকটা দল থাকলে এ নির্বাচন আরও অংশগ্রহণমূলক হতো। যদি তারা আসতো তাহলে নির্বাচনটা আরও ভাল হতো।’

এসময় উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে ভোটারদের কেন্দ্রে এসে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান জানান তিনি।

আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী তিনি বলেন, ‘বৃষ্টির কারণে ভোটারদের উপস্থিতি কম। তারপরও আমি ভোটারদের অনুরোধ করবো- আপনারা ভোট দিতে আসুন। ভোট গণতান্ত্রিক অধিকার। ভোট দিয়ে আপনারা গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠিত করুন। নগরীর উন্নয়নে আপনারা নৌকা প্রতীকে ভোট দিন।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি কথা দিচ্ছি নৌকার জয় হলে আমরা সবাই মিলে সুস্থ ও গতিশীল ঢাকা গড়ে তুলবো।’

ভোটারদের কম উপস্থিতির কারণে তিনি হতাশ নন বলেও জানান আতিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘আজকে বৃষ্টি ও ছুটির দিন। তারপর এ নির্বাচনে কাউন্সিলরদের ভোট হচ্ছে না, যে কারণে ভোটার উপস্থিতি কিছুটা কম।’

উল্লেখ্য, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদে উপ-নির্বাচন এবং উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের নতুন ৩৬টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর ও নারী কাউন্সিলর পদে নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে। বৃহস্পতিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টায় এই ভোটগ্রহণ শুরু হয়। চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

ইসি সূত্র জানায়, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটির এ নির্বাচনে মোট ৩২৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মেয়র পদপ্রার্থী ছাড়া উত্তরের সম্প্রসারিত ১৮টি ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১১৬ জন ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ৪৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ইতোমধ্যে উত্তরের ৯ নম্বর ওয়ার্ডে একক প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন এবং ২১ নম্বর ওয়ার্ডে ৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। আর দক্ষিণ সিটির সম্প্রসারিত ১৮টি ওয়ার্ডের সাধারণ ওয়ার্ডে ১২৫ জন ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ২৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

ইসি আরও জানায়, উত্তর সিটির সাধারণ ওয়ার্ড ৫৪টি ও সংরক্ষিত ওয়ার্ড ১৮টি, মোট ভোটকেন্দ্র এক হাজার ২৯৫টি এবং ভোটকক্ষ ৬ হাজার ৪৮২টি। এতে মোট ভোটার ৩০ লাখ ৩৫ হাজার ৬২১ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১৫ লাখ ৬৩ হাজার ৫৩০ জন এবং নারী ভোটার ১৪ লাখ ৭২ হাজার ৯১ জন।

ঢাকা উত্তর সিটির সম্প্রসারিত ১৮ ওয়ার্ডের মধ্যে ১৮টি সাধারণ ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত ৬ ওয়ার্ডে মোট ভোটকেন্দ্র ২৪৩টি এবং ভোটকক্ষ এক হাজার ৪৭২টি। মোট ভোটার ৫ লাখ ৯০ হাজার ৭০৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৯৮ হাজার ২৮৫ জন এবং নারী ভোটার ২ লাখ ৯২ হাজার ৪২০ জন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটির সম্প্রসারিত ১৮টি ওয়ার্ডের মধ্যে সাধারণ ১৮টি ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত ৬টি ওয়ার্ডে মোট ভোটকেন্দ্র ২৩৫টি এবং ভোটকক্ষ ১ হাজার ২৫২টি। মোট ভোটার ৪ লাখ ৯৬ হাজার ৭৩৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৫৪ হাজার ৪৯৭ জন এবং নারী ভোটার ২ লাখ ৪২ হাজার ২৩৮ জন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত