প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রতি জেলায় একটি উপজেলা হবে মাদকমুক্ত

ডেস্ক রিপোর্ট: দেশের প্রতিটি জেলায় কমপক্ষে একটি উপজেলাকে ‘মাদকমুক্ত উপজেলা’ ঘোষণার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এরইমধ্যে জেলা প্রশাসকরা এ নিয়ে সচেতনতামূলক সভা-সমাবেশসহ বিভিন্ন কাজ শুরু করেছেন। তবে, কবে নাগাদ এটি বাস্তবায়ন করা যাবে, সেটি নিশ্চিত করতে পারেননি সংশ্লিষ্টরা। গণমাধ্যমসহ সবার সহযোগিতায় সরকারের এ উদ্যোগ বাস্তবায়ন সম্ভব বলে মনে করছেন তারা।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলমের সভাপতিত্বে ৩১ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত বিভাগীয় কমিশনারদের সমন্বয় সভায় দেশের প্রতিটি জেলায় কমপক্ষে একটি করে উপজেলাকে মাদকমুক্ত ঘোষণা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এতে দেশের আটটি বিভাগের বিভাগীয় কমিশনাররা উপস্থিত ছিলেন। মাঠ প্রশাসনের এই শীর্ষ কর্মকর্তাদের সভায় মাদক ছাড়াও আরও বিভিন্ন বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। যথাযথ পদ্ধতি অনুসরণ করে মোবাইল কোর্ট (ভ্রাম্যমাণ আদালত) পরিচালনা অব্যাহত রাখতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ফৌজদারি কার্যবিধির আওতায় বিচারাধীন মামলাগুলো নিয়েও এ সভায় পর্যালোচনা করা হয়। যৌন হয়রানি প্রতিরোধেও মোবাইল কোর্ট অব্যাহত রাখা এবং গণসচেতনতা বাড়ানোর কার্যক্রম চালাতে বলা হয়। সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ, মাদকাসক্তি, বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের প্রচারণামূলক সভা ও উঠান বৈঠক অনুষ্ঠানের ওপরও গুরুত্বারোপ করা হয়।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, সরকার মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে। চলছে মাদকের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান। সরকারের যেকোনও সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের দায়িত্বও থাকে মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের। দেশ থেকে মাদক নির্মূল করার লক্ষ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি জেলা প্রশাসকদেরও তৎপর থাকা জরুরি। সেজন্য সরকারের মাদকবিরোধী অভিযান সফল করতে জেলা প্রশাসকদেরকেও নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া প্রতি জেলায় একটি উপজেলাকে মাদকমুক্ত ঘোষণার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সেই উদ্যোগের বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগকে নিয়মিত অবহিত করতেও নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে জেলা প্রশাসকদের।

জানতে চাইলে রাজশাহী বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার মো. নূর উর রহমান বলেন, ‘মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সমন্বয় সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দেশের সব জেলাতেই এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। জেলা ও উপজেলার কর্মকর্তাদের বলা হয়েছে। তারা যেন মোটিভেশনের কার্যক্রম শুরু করেন। উনারা সেটা শুরু করেছেন। ইতোমধ্যে সবাইকে সচেতন করার জন্য নাগরিক সমাবেশ করা হচ্ছে। রাজশাহীর আটঘরিয়ায় সমাবেশ করা হয়েছে। যেখানে-যেখানে সম্ভব সেখানে আমরা দ্রুত শুরু করে দিচ্ছি।’

কবে নাগাদ মাদকমুক্ত ঘোষণা করা যাবে জানতে চাইলে এই বিভাগীয় কমিশনার আরও বলেন, ‘মাদকমুক্ত ঘোষণা তো এক-দুদিনের কাজ নয়। গণমাধ্যমসহ সবার সহযোগিতা লাগবে। তবে আমরা যত দ্রুত সম্ভব এটা করতে চাই। এ কাজে কোনও টাইমলাইন দেওয়া যাবে না। আমরা পার্সেন্টেজ ধরে ধরে কমাতে ও এগুতে চাই।’সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত