প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অপু উকিল বললেন, স্বাধীনতা বিরোধী বিএনপি ভোটের মাঠে পরাজিত হয়ে গণশুনানির নামে গণকান্না শুরু করেছে

লিয়ন মীর : যুব মহিলালীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক অপু উকিল বলেছেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বাধীনতা বিরোধীবিএনপি-জামায়াত জোটকে জনগণ ভোট দেয়নি। ভোটের মাঠে বিএনপি-জামায়াত জোটকে মানুষ প্রত্যাখান করেছে। সেকারণেই বিএনপির ভরাডুবি হয়েছে। ভোটের মাঠে পরাজিত হয়ে বিএনপি এখন গণশুনানির নামে গণকান্না শুরু করেছে।

এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, বিএনপি গণশুনানির নামে যে গণকান্না করছে এটা সাধারণ দৃষ্টিতে মোটেই গ্রহণযোগ্য নয়। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি গণশুনানির নামে গণতামাশা করছে। লক্ষ করলে দেখা যায়, বিএনপির এই তামাশা কিন্তু নতুন কিছু নয়। বরাবরই এই দলটি বাংলাদেশের স্বাধীনতা, বাংলাদেশ এবং মানুষের সাথে তামাশা করে আসছে। বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া একদিকে মুখে বলেন যুদ্ধাপরাধীর বিচার চাই, আবার বলেন যাদের বিচার হচ্ছে তাদের ছেড়ে দিতে হবে। ৩০ লাখ শহীদের সংখ্যা নিয়েও তিনি প্রশ্ন তুলেছেন। আবার এই দলটির নেতারা শহীদ বুদ্ধিজীবীদেরকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেন। মুক্তিযুদ্ধে পরাজিত শক্তি স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াত, যারা বাংলাদেশ স্বীকার করে না, তাদের সাথে জোটবদ্ধভাবে রাজনীতি করছে। আবার নিজেদের মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি হিসেবে দাবি করছে। এগুলো কি তামাশা নয়? দেশের মানুষ বিএনপির এই তামাশা এখন আর মেনে নিচ্ছে না, যার প্রমাণ মিলেছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির ভরাডুবির মাধ্যমে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, একটু ভালো করে লক্ষ করলে দেখবেন-একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনটা অনুষ্ঠিত হয়েছিলো বিজয়ের মাসে। ভোটের লড়াইটা ছিলো মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি বনাম বিপক্ষের শক্তির। কেননা জামায়াত বাংলাদেশের স্বাধীনতা চায়নি। জামায়াত স্বাধীনতাবিরোধী দল। সেই স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াতের মার্কা ছিলো ধানের শীষ। তাই মানুষ স্বাধীনতাবিরোধীদের ভোট না দিয়ে প্রত্যাখান করেছে। যার ফলে বিএনপির ভরাডুবি। বিএনপির উচিত জনগণের কাছে ক্ষামা চাওয়া। কিন্তু ক্ষমা না চেয়ে বিএনপি যদি জনগণের রায় নিয়ে এভাবে গণশুনানির নামে গণতামাশা বা গণকান্না করে তাহলে এই দলটি আরো বেশি জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত