প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘চকবাজারে কেমিক্যালের পরিবর্তে মোগলাই পরোটা থাকুক’ হ ‘খেলনা পিস্তল নিয়ে বড়রা আর ভয় না দেখাক’হ ‘ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধ দামামা থামুক’

অপরাহ্ন সুসমিতো : সেকেন্ড কাপ নামে একটা কফি শপ আছে আমার বাসার পাশেই। প্রায় সন্ধ্যায় আমরা দলেবলে ওখানে কফি খাই আর লোভাতুর আড্ডা। শহরে বেশ ক’দিন গরমের প্রাবল্য। বন্ধু সভার অনেকের অনুপস্থিতিতে আজ একাকী কফি খেতে গেলাম সেকেন্ড কাপে। সেকেন্ড কাপের ভেতরে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রটা কাজ করছে না। ভেতরে অগ্নি গরম। বেচারা মেয়েগুলো গরমে কাহিল। অবশ্য বাইরের লনে কফি নিয়ে বসাটা খুব আরামের। খোলা বাতাস বলে ভালো লাগাটা বেশ জম্পেশ।
কফি নিয়ে বাইরে বেরুতেই দেখি সুন্দর সটান দাঁড়িয়ে আছে। সুন্দর একটা সন্ধ্যারঙা টি-শার্ট পরে আছে। টি-শার্টে লেখা বড় করে : ক্যাচ মি ইফ ইউ ক্যান। সুন্দরকে দেখে সবারই ভালো লাগবে। আমারও লাগলো। সরাসরি কারো কাছে ফোন নম্বর চাওয়া অশোভন। কী করি। আমি উদাস ভঙ্গিতে সুন্দরকে বললাম : সুন্দরের ই-মেইল ঠিকানাটা কী পাওয়া যেতে পারে? সুন্দর খুক করে হেসে দিলো। হাসিটা খুব সুন্দর। একটা রোদেনী টাইপ সুন্দর। হাসলে অবশ্য সবাইকে সুন্দর দেখায়। ঝরনার মতো ভেঙে ভেঙে পড়ে। সুন্দর বললো : কৌশলটা ভালো লেগেছে। এই নাও ই-মেইল ঠিকানা : এক সুন্দর রাত@জিমেইল ডট কম
শসা কাটার মতো মসৃণ করে বাসায় এসেই সুন্দরকে কাব্য করে ই-মেইল করলাম (রবীন্দ্রনাথ থেকে ধার করে)। রাতের সব তারাই আছে অপরাহ্নের আলোর গভীরে। খটকা লাগলো! বানিয়ে বললাম কিনা!
সেকেন্ড কাপ-২ : আজ সেকেন্ড কাপে ঢুকছি। শহরে আজ দাবানলের মতো শীত। পুড়ে যাবার মতো … দেখি একটা মেয়ে হেলেদুলে আমার দিকে আসছে। একটু ভয় পেলেও মুখে হাসি ধরে রাখলাম মাংসে আলুর তরকারির মতো। মেয়েটা সাঁ করে আমার হাতে একটা চিরকুট ধরিয়ে দিয়ে হাওয়া। চিরকুট খুলে দেখি, তাতে লেখা : ক. চকবাজারে কেমিক্যালের পরিবর্তে মোগলাই পরোটা থাকুক। খ. ইঁদুরগুলো অনুমতি নিয়ে খাবার খাক। গ. ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধ দামামা থামুক। ঘ. পাখিরা ঠোঁট দিয়ে খুঁটে খুঁটে পুষ্টিকর খাবার খাক। ঙ. যারা সারাদিন ফেসবুক করে তারা প্রতিদিন ৩ কি.মি. হাঁটুক। চ. বড়দিন আরো বড় হোক। ছ. শিশুদের স্কুলের ব্যাগ কম ভারি হোক। জ. আমার মনের পাসওয়ার্ড না থাকুক। ঝ. কোক ও পেপসির বন্ধুতা হোক। ঞ. খেলনা পিস্তল নিয়ে বড়রা আর ভয় না দেখাক। ট. প্রতিটি মায়ের নামে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট হোক। ঠ. কাপ ভালোবাসুক অসভ্য চামচকে। ড. স্বামী নখ কেটে দিক বউয়ের। ঢ. ‘গল্পগুলো’ সব বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠ্য হোক। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত