প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শিলাবৃষ্টিতে ইকোপার্কে শত শত পাখির প্রাণহানি

মঞ্জুর মোর্শেদ : নড়াইলের কালিয়া উপজেলার নড়াগাতি থানাধীন পানিপাড়া গ্রামের অরুনিমা রিসোর্ট গলফ ক্লাব ও ইকোপার্কে শত শত পাখি মারা গেছে। টানা দুদিনের বৈরি আবহাওয়া ও শিলাবৃষ্টি কারণে বিভিন্ন প্রজাতির দেশি ও অতিথি পাখি মারা গেছে। অরুনিমা রিসোর্ট গলফ ক্লাব ও ইকো পার্কের চেয়ারম্যান মোল্লা খবির উদ্দিন আহম্মেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সময় টিভি

কৃষি পর্যটন কেন্দ্র অরুনিমার ব্যবস্থাপক মুনিব এইচ খন্দকার বলেন, সারাদেশের মতো নড়াইলেও হালকা ও ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার ভোর রাতের দিকে পানিপাড়া অরুনিমা রিসোর্ট গলফ ক্লাব ও ইকোপার্ক এলাকায় ঝড়ো হাওয়ার ও বৃষ্টির সঙ্গে শিলাবৃষ্টি হয়। এই শিলাবৃষ্টির কারণে ইকোপার্কের ভেতর বিভিন্ন গাছে থাকা শত শত দেশি ও অতিথি পাখি মারা গেছে। ভোরে মৃত পাখিগুলো দেখে অরুনিমা রিসোর্ট গলফ ক্লাব ও ইকোপার্কে কর্মরত কর্মকর্তা ও শ্রমিকরা কান্নায় ভেঙে পড়েন।

ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইরফান আহম্মেদ বলেন, প্রায় ৬০ একর এলাকা জুড়ে গড়ে উঠা অরুনিমা রিসোর্ট গলফ ক্লাব ও ইকো পার্কের বিভিন্ন গাছে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন প্রজাতির কয়েক হাজার পাখির বাসস্থান। প্রতিদিন বিকেল ও সন্ধ্যা বেলা পানকৌড়ি, চিকেড়, শামুকখোলা, বালুহাঁস, বক, কায়েম হাঁসপাখি, শালিখ, দোয়েল, ময়না, মাছরাঙ্গা, ঘুঘু, শ্যামা, কোকিল, টুনটুনি ও চড়ুইসহ বিভিন্ন প্রজাতির পাখির কিচিরমিচির শব্দে এলাকা মুখরিত হয়ে উঠে। পাখিগুলো এখানে ডিম পাড়তো ও বাচ্চা ফুটাতো।

তিনি আরো বলেন, বর্তমানে দেশের এ কৃষি পর্যটন কেন্দ্রটি পাখির অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে। সকাল হলে পাখিগুলো খাবারের সন্ধানে দূর-দূরান্তে বেড়িয়ে পড়ে। বিকেল ও সন্ধ্যায় পাখিগুলো ফিরে আসে। এ দৃশ্য দেখার জন্য পাখি প্রেমিক ও পর্যটকরা নিয়মিত এখানে এসে ভিড় জমায়। ২০০৪ সাল থেকে প্রতি বছরই শীত মৌসুমে বছরের অধিকাংশ সময় বিভিন্ন প্রজাতির পাখির কলতানে মুখরিত হয় এই পার্কটি। পাখির জন্য সংরক্ষিত এলাকা ঘোষণা করায় একযুগ আগে থেকেই এলাকাটি পাখির গ্রাম নামে পরিচিত।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত