প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রধানমন্ত্রীকে প্রশ্ন করতে গিয়ে বেশি সময় নেয়ায় সংসদে ক্ষোভ

আসাদুজ্জামান সম্রাট  : জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বা অন্য মন্ত্রীদের সম্প‚রক প্রশ্ন করার সময় সরাসরি প্রশ্ন না করে বিভিন্ন ধরনের ভুমিকা ও অন্য বিষয়ে কথা বলায় সংসদে ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য বর্ষীয়ান পার্লামেন্টেরিয়ান শেখ ফজলুল করিম সেলিম।

বুধবার জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত ৩০ মিনিটের প্রশ্নোত্তোর পর্ব শেষে ফ্লোর নিয়ে শেখ সেলিম স্পিকারকে এ বিষয়ে নির্দেশনা দেয়া ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানান। এর আগে প্রধানমন্ত্রীকে প্রশ্ন করতে গিয়ে তার প্রশংসা করা ছাড়াও অপ্রসাঙ্গিক কথা বলেন বিরোধী দলসহ সরকারি দলের একাধিক এমপি।

এরপর শেখ সেলিম বলেন, আমরা প্রায়ই লক্ষ্য করি কোন কোন সদস্য সংসদের কার্যপ্রণালী বিধি উপেক্ষা করে প্রশ্ন করার নামে তার আগে বিরাট একটা ভুমিকা রাখেন বা বক্তৃতা দেন, এটা ঠিক নয়। প্রশ্নকর্তা শুধুমাত্র সংক্ষেপে তার প্রশ্নটি করবেন এমন বিধি বিধান রয়েছে কার্যপ্রণালী বিধিতে। তাছাড়া একটি তারকা চিহ্নিত প্রশ্নের পরে মাঝে মধ্যেই ২-৩ বা তারও বেশি সদস্যকে প্রশ্ন করার সুযোগ দেয়া হয়। তাতে সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। আবার অনেকেই একই ধরনের প্রশ্ন করায় অন্যরা গুরুত্বপ‚র্ণ প্রশ্ন করা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। এবিষয়ে আপনি সংসদের কার্যপ্রণালী বিধি মেনে তাদেরকে শুধু মাত্র প্রশ্নটি উত্তাপনের নির্দেশনা দেবেন, এটা আশা করি।
তিনি বলেন, আজ দেখলাম অনেক প্রশ্নকর্তা প্রশ্ন করার নামে নাতিদীর্ঘ বক্তৃতা দিয়ে যাচ্ছেন। এসব কারণে গতকাল মাত্র ৪টি সম্প‚রক প্রশ্ন করার সুযোগ পান ৪জন সংসদ সদস্য। ফলে প্রধানমন্ত্রী মাত্র ২জন এমপির তারকা চিহ্নিত ২টি প্রশ্নের জবাব দিতে পরেছেন।

ক্ষুব্ধ হয়ে শেখ সেলিম স্পিকারকে কার্যপ্রণালী বিধি সকল এমপিদের স্বরণ রেখে শুধু মাত্র কি জানতে চান সে প্রশ্নটি সংক্ষেপে করার আহ্বান জানান। এছাড়া একটি লিখিত প্রশ্নের পরে সর্বোচ্চ ১ জনকে সম্প‚রক প্রশ্ন করার অনুমতি দেয়ার কথা বলেন।

এর পরে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, আপনি যে আহ্বান  জানিয়েছেন তা নিশ্চয়ই সব সংসদ সদস্য শুনেছেন। আজো আমি প্রতিটি প্রশ্ন কর্তার প্রশ্নের মাঝখানে ইন্টারাপ করছিলাম। বারে বারে বলছিলাম ‘মাননীয় সংসদ সদস্য আপনি প্রশ্ন করুন, প্রশ্ন করুন, ভূমিকা রাখার প্রয়োজন নেই’, কেননা আমাদেরকে সময়ের দিকে লক্ষ্য রেখে প্রশ্ন সাজাতে হয় এবং প্রশ্নকর্তার সংখ্যাও নির্ধারন করতে হয়। সে কারণে সংসদে প্রশ্নকর্তারা যাতে শুধুমাত্র তাদের জিজ্ঞাস্য সরাসরি করেন তা হলে আমাদের সংসদ পরিচালনায় সুবিধা হবে। স্পিকার এসময় বলেন, আমি প্রতিটি লিখিত প্রশ্নের পরে আমার ক্ষমতা বলে শুধুমাত্র ২ জনকে সম্প‚রক প্রশ্ন করার সুযোগ দিয়ে থাকি। যাতে সময় মেনে সংসদ পরিচালণার সুবিধা হয়।

উল্লেখ্য, বুধবার জাতীয় সংসদের শুরুতে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নিদ্দিষ্ট প্রশ্নকাল ৩০ মিনিটে বেশ কয়েকজন সম্প‚রক প্রশ্ন করেন। তার মধ্যে জাতীয় পার্টির সাবেক প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু, এমপি কাজী ফিরোজ রশীদ, দিদারুল আলম ও ডা. রুস্তম আলী ফরাজী প্রধানমন্ত্রীকে সম্প‚রক প্রশ্ন করার সময় নাতিদীর্ঘ বক্তৃতা করেন। অনেকে ৩০ সেকেন্ডের একটি প্রশ্ন করতে ৩ মিনিটের বেশীও সময় নেন। এসময় স্পিকার বেশ কয়েকবার তাদেরকে সরাসরি প্রশ্ন করার আহ্বান  জানিয়েও ব্যর্থ হন। যার ফলে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত সময়ে ১৩ টি তারকা চিহ্নিত প্রশ্ন থাকলেও তিনি মাত্র দুটি প্রশ্নের উত্তর দিতে সমর্থ হন।
ঈরে ফ্লোর নিয়ে জাতীয় পার্টির মুজিবুল হক চুন্নু প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্নোত্তর পর্বটি এক ঘণ্টা করার প্রস্তাব করেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত