প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মেট্রোপলিটন চেম্বার বলছে, বড় ধরনের খেলাপি ঋণ বিনিয়োগে প্রধান বাধা

রাশিদ রিয়াজ : মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (এমসিসিআই) সতর্ক করে দিয়ে বলছে খেলাপি ঋণ কমানো না গেলে তা বিনিয়োগে প্রধান বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে। একই সঙ্গে এ পর্যবেক্ষণে বলা হয়েছে সুশাসনের অভাব ও দুর্নীতি দেশের বাণিজ্য টেকসই ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির ক্ষেত্রে প্রধান অন্তরায় দাঁড়িয়েছে। এর পাশাপাশি এমসিসিআই বলছে, নীতি সংস্কার করে তা বিনিয়োগ বান্ধব করার পরিবর্তে এক ধরনের স্থবিরতা বা স্থগিতাদেশের কারণে বিনিয়োগ ও প্রবৃদ্ধি নাও বাড়তে পারে। গত অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর অর্থাৎ দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে এমসিসিআই’এর অর্থনৈতিক পর্যালোচনায় এধরনের পর্যবেক্ষণ দেয়া হয়েছে। ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেস

এমসিসিআই বলছে, নীতিনির্ধারকদের অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নেতিবাচক ঝুঁকিগুলোর ব্যাপারে যথেষ্ট গুরুত্ব দেয়া উচিত যাতে বিনিয়োগ ও প্রবৃদ্ধি টেকসই হয় এবং এক্ষেত্রে অগ্রগতি অব্যাহত থাকে। আর্থিক শৃঙ্খলা বজায় রাখার ক্ষেত্রে অভ্যন্তরীণ ঝুঁকি চিহ্নিত করে বলা হয়, বড় ধরনের আর্থিক ঘাটতি, আর্থিক শৃঙ্খলা বজায় রাখতে অক্ষমতা, দুর্বল মূলধন ব্যয়ের মত গুরুত্বপূর্ণ ঝুঁকি রয়ে গেছে যা বাংলাদেশের মত উন্নয়শীল দেশের পক্ষে উপেক্ষা করা সম্ভব হয় না।

সরকারি ও বেসরকারি যৌথ বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বিভিন্ন চ্যালেঞ্জের কথা উল্লেখ করে বলা হয়, শ্রমিক বিশৃঙ্খলা, উচ্চ সুদে ঋণ, দুর্নীতি সর্বোপরি সুশাসনের অভাব এক্ষেত্রে জটিলতা সৃষ্টি করছে যা প্রবৃদ্ধির অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছে। একই সঙ্গে রোহিঙ্গা শরণার্থী সমস্যা ভূকৌশলগত উত্তেজনার মত ইস্যুর দিকে নজর দেয়ার তাগিদ দিয়েছে এমসিসিআই। তবে দেশের সার্বিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতিকে ইতিবাচক বলে উল্লেখ করে এ অভিজাত বণিক সংগঠনটি।

এমসিসিআই বলে, অর্থনীতির গতি আগাচ্ছে যদিও কিছু ঝুঁকি রয়ে গেছে। রেমিটেন্সের প্রবাহ ও রফতানি ধীরগতি, বিনিয়োগের নি¤œহার বিশেষ করে সরাসরি বৈদেশিক বিনিয়োগের হার আশান্বিত নয়। তারপরও মুদ্রাস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে, স্থিতিশীল বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময় হার ও এর মজুদকে সন্তোষজনক বলে অভিহিত করা হয়। কৃষি খাতের গতি সন্তোষজনক অভিহিত করে বলা হয় এখাতে সরকারের অর্থায়ন আরো বৃদ্ধি পেলে এর টেকসই নিশ্চিত হবে। এরপাশাপাশি অবকাঠামো খাতে দুর্বলতা এড়িয়ে গ্যাস ও বিদ্যুৎ সরবরাহকে উৎপাদনশীল খাতে নিরবচ্ছিন্ন করার কথা বলেছে এমসিসিআই।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত