প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বরিশালে বন্ধুকযুদ্ধে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য নিহত

খোকন আহম্মেদ হীরা, বরিশাল : জেলার মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার কাজীরহাট থানা এলাকায় সোমবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে পুলিশের সাথে বন্ধুকযুদ্ধে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য মামুন সরদার (২৭) নিহত হয়েছে। নিহত মামুন সরদার হিজলা উপজেলার খুন্না গ্রামের মালেক সরদারের পুত্র।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কাজীরহাট থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল খালেক পিপিএম জানান, ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি ওয়ান শুটারগান, একটি পাইপগান, দুই রাউন্ড রাইফেলের গুলি, দুই রাউন্ড পিস্তলের গুলি, বেশকিছু গুলির খালি খোসা, দুইটি রামদা, একটি শাপল, ছয়টি মুখোশ উদ্ধার করেছে।

সূত্রমতে, গত ৫ ফেব্রুয়ারী কাজীরহাট এলাকার পান্না মীরের বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলার সূত্র ধরে কয়েকদিন পূর্বে রাসেল হাওলাদার নামের একজনকে আটক করা হয়। পুলিশের কাছে ও আদালতে রাসেলের দেয়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ওই ডাকাতি মামুন সরদারের নেতৃত্বে সংগঠিত হয়। যার মালামালও তার কাছে রয়েছে।

এ সূত্রধরে পুলিশ অভিযানে নেমে সোমবার রাত আটটার দিকে মুলাদী ব্রীজ এলাকা থেকে মামুন সরদারকে গ্রেফতার করে। পরে তার দেয়া তথ্যানুযায়ী, কাজীরহাট থানা এলাকার কাজীরাবাদ ডিগ্রিরপাড়স্থ মনিরের ইটভাটার পশ্চিমপাশে ডাকাতির মালামাল উদ্ধারের জন্য অভিযানে যায় পুলিশ।

সোমবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে অভিযানের সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মামুনের সহযোগিরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এসময় পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এসময় মামুন পালিয়ে যাওয়ার জন্য দৌঁড় দিলে সে গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুত্বর আহত হয়। পরে তাকে মুলাদী হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসকেরা তাকে মৃত বলে ঘোষনা করেন।

ওসি আরও জানান, নিহতের লাশের ময়নাতদন্তের জন্য মঙ্গলবার দুপুরে বরিশাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। পাশাপাশি এ ঘটনায় অস্ত্র আইন, পুলিশের ওপর হামলা ও মামুন নিহত হওয়ার ঘটনায় তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে জেলা পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম জানান, নিহত মামুনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ডাকাতিসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত