প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক কাঠামোয় আসছে চমক

সমীরণ রায় : একাদশ জাতীয় নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয়ের পর এবার দল গোছাতে হাত দেবে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী আগামী অক্টোবরে ২১তম জাতীয় সম্মেলন হওয়ার কথা রয়েছে। সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন ও মন্ত্রিসভা গঠনসহ প্রতিটি ক্ষেত্রে একে একে চমক দেখিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা। শুধু তাই নয়, মন্ত্রিসভা গঠনে দলের গুরুত্বপূর্ণ অনেক নেতারা বাদ পড়েছেন। অর্থাৎ দল ও সরকার আলাদা করতে চায় তারা। সঙ্গত কারণে দলের সভাপতি শেখ হাসিনা ছাড়া সম্পাদকীয় গুত্বপূর্ণ পদটিসহ প্রতিটি পদেই সম্মেলনের মধ্য দিয়ে আসছে পরিবর্তন। এতে দলটি সাংগঠনিক কাঠামোয় নিয়ে আসছে চমক। এ তথ্য সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

জানা গেছে, ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে সামনে রেখে ইতোমধ্যে নেতাকর্মীরা পদ পদবী পেতে দৌড়ঝাপ শুরু করেছেন। তবে একাদশ নির্বাচনে দলের যারা গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকেও দলীয় মনোনয়ন এবং মন্ত্রিসভায় ঠাই পাননি তাদের মধ্যে থেকে সম্পাদকীয় গুরুত্বপূর্ণ পদে আনা হতে পারে। এরমধ্যে যেমন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, বিএম মোজ্জাম্মেল হক, আহমদ হোসেনসহ বেশ কয়েকজন সিনিয়র নেতা রয়েছেন।

আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা মনে করেন, সরকার ও দল আলাদা করা হলে বড় বড় প্রকল্পের দ্রুত বাস্তবায়ন ও মন্ত্রণালয়ের কাজের জন্য পদটি হারাতে পারেন দলটির সাধারণ সম্পাদক। তবে গেল সরকারের গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়সহ দলের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব একই সঙ্গে পালন করেছেন ওবায়দুল কাদের। সেকারণেই তিনি দলের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব আবারও পেতে পারেন। কিন্তু গুণজন রয়েছে আগামী ২১তম সম্মেলনে একজন সভাপতিম-লীর সদস্য ও তিনজন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদককে নিয়ে আসা হতে পারে সাধারণ সম্পাদক পদটিতে। রদবল হতে পারে যুগ্মসহ দলের সাংগঠনিক সম্পাদক পদেও। সে হিসেবে বর্তমান সাংগঠনিক দুইজনকে যুগ্ম সম্পাদক পদে পদোন্নতি দেওয়া হতে পারে। আর সাংগঠনিক পদে যারা কেন্দ্রীয় সদস্য রয়েছেন, এমন তরুণদের আনা হতে পারে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ২০তম জাতীয় সম্মেলন অক্টোবরে অনুষ্ঠিত হয়েছিলো। তাই আগামী সম্মেলন অক্টোবরেই করার চিন্তা আছে। প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সঙ্গে আমার এ ব্যাপারে কথা হয়েছে।

এ সম্পর্কে আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্ল্যাহ আমাদের সময় ডট কমকে বলেন, আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী যথা সময়েই ২১তম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। কবে এ সম্মেলন অক্টোবরেই হতে হবে বিষয়টি এমন না। এটি আগেও হতে পারে। আর দলের সম্মেলনে পদ পদবী পরিবর্তন তো আসবেই। নেতৃত্বে নতুন কেউ আসতেই পারেন। যারা বিভিন্ন সময় রাজনীতি করতে গিয়ে মামলা, হামলা ও নির্যাতন সহ্য করেছেন তাদেরকে এবার গুরুত্বপূর্ণ পদে আনা হতে পারে। তবে সম্মেলন শুধু নেতা পরিবর্তনের জন্য নয়, দলের গঠনতন্ত্রেও সংযোজন-বিয়োজন হয়।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, দলের সাধারণ সম্পাদক কে হবেন, এ ইস্যুতে কোনো মন্তব্য করতে চাই না। তবে সাধারণত সভাপতি মন্ডলীর সদস্য থেকে কেউকে করা হতে পারে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত