প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চট্টগ্রামে নাটকীয় বিমান ছিনতাই চেষ্টার অবসান, সন্দেহভাজনকে আটক

সারোয়ার জাহান : চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে বিমান ছিনতাই ঘটনার অবসান ঘটেছে, আটক করা হয়েছে সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে। রোববার (২৪ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা থেকে রওনা হওয়ার পর মাঝআকাশে ওই ব্যক্তি পাইলটকে জিম্মি করেছিলো; সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় বিমানটি চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমানবন্দরে নামার পর এটি ঘিরে ফেলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

এরপর সেনাবাহিনীর কমান্ডোরা অভিযানে নামে বলে জানান আইএসপিআর’র পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আবদুল্লাহ ইবনে জায়েদ। তার কিছু সময়ের মধ্যে অবসান ঘটে দুই ঘণ্টার নাটকীয়তার।

বেসামরিক বিমান পরিচালনা কর্তৃপক্ষের একজন কর্মকর্তা রাত সাড়ে ৭টার দিকে শাহ আমানতে সাংবাদিকদের কাছে বিমানটি জিম্মিদশা মুক্ত হওয়ার খবর দেন।
তিনি আরো বলেন, একজনকে আটক করা হয়েছে।

সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আটক করা হয় বলে জানিয়েছেন, চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ কমিশনার মাহবুবার রহমান।

এর আগে বিমানের ভেতরে থাকা কেবিন ক্রুকে উদ্ধার ও হাইজ্যাককারীকে গ্রেফতারে বিমানবন্দর এলাকায় প্রবেশ করে সেনাবাহিনীর কমান্ডো ইউনিট ও পুলিশের সোয়াত টিম। এছাড়া যে কোনো দুর্ঘটনা রোধে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের চারটি ইউনিটের ১১টি গাড়ি ঘটনাস্থলে অবস্থান নেয়।

সূত্র জানায়, বিজি-১৪৭ নং ফ্লাইটটি ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম হয়ে দুবাই যাওয়ার কথা ছিল। বেলা সাড়ে ৩টায় ঢাকা থেকে ছেড়ে চট্টগ্রাম আসার পথেই এক বা একাধিক হাইজ্যাকার পিস্তল হাতে বিমানের ককপিটে প্রবেশের চেষ্টা করে। পাইলট ও কেবিন ক্রুরা বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটের দিকে ফ্লাইটটি জরুরিভাবে শাহ আমানতে অবতরণ করান।

দুবাইগামী ফ্লাইট ময়ূরপঙ্খীতে যাত্রী হিসেবে ছিলেন চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য মঈন উদ্দীন খান বাদল। তিনি বলেন, ভেতরে একজন হাইজ্যাকার আছে। তিনি বাঙালি। বিমান থেকে সব যাত্রীকে নামানো হয়েছে। এখন হাইজ্যাকারকে নামানোর চেষ্টা চলছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত