প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিশ্বকাপের আগে টি-টোয়েন্টি খেলার বিপক্ষে কোহলি

স্পোর্টস ডেস্ক: ৩০ মে থেকে শুরু হচ্ছে ২০১৯ বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপের আগে অস্ট্রেলীয়ার আগে পাঁচ ওয়ানডে ও দুটি টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে ভারত। বিশ্বকাপের আগে টি-টোয়েন্টির বদলে পঞ্চাশ ওভারের ম্যাচ বেশি খেলতে পারলেই লাভ হত বলে মনে করেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহালি।

বিশাখাপত্তনমে রবিবার টি-টোয়েন্টি দিয়ে শুরু হচ্ছে অজিদের বিরুদ্ধে সিরিজ। এই সিরিজের পরেই আইপিএল খেলবে ভারত। আইপিএল শেষেই বিশ্বকাপ। সেই বিশ্বকাপকে সামনে রেখে কোহলি মনের করেন টি-টোয়েন্টি না খেলে সাতটি ওয়ানডে খেললে বেশি উপকৃত হবে দল। বিশ্বকাপের আগে এই পাঁচ ওয়ানডে ম্যাচকেই প্রস্তুতি শেষ প্রস্তুতি মনে করেন কোহলি।

শনিবার বিশাখাপত্তনমে সাংবাদিক সম্মেলন করতে এসে কোহালি এই বিষয়টিকেই তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপের আগে আরো কয়েকটি ওয়ানডে খেলতে পারলেই ভাল হত। ব্যাপারটা অনেক যুক্তিপূর্ণ হত।’
বিশাখাপত্তনমের পরে বেঙ্গালুরুতে হবে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি। ভারত অধিনায়ক বলেন, ‘আইপিএলে আমরা অনেক টি-টোয়েন্টি খেলার সুযোগ পাব। তাই এই সিরিজে আরো দু’টি ওয়ানডে পেলে শুধু আমাদের নয়, অস্ট্রেলিয়ার পক্ষেও লাভজনক হত।’

তিনি আরো বলেন, ‘সামনে যা আছে, তা নিয়েই আমাদের চলতে হবে। কাজে লাগতে হবে সুযোগকে। সঠিক মানসিকতা নিয়ে মাঠে নামতে হবে।’ অধিনায়ক ঠিক অভিযোগের সুরে সূচি নিয়ে মন্তব্য না করলেও প্রশ্ন উঠছে কর্তাদের পরিকল্পনা নিয়ে। অতীতেও সূচি নিয়ে অনুযোগ এসেছে ভারতীয় দলের দিক থেকে। বিদেশে সফর পরিকল্পনায় কোনও চিন্তাভাবনার ছাপ দেখা যায়নি। এ বারও প্রশ্ন উঠতেই পারে, বিশ্বকাপের আগে দু’টো টি-টোয়েন্টি ম্যাচ আবার রাখা হল কেন? তার বদলে পাঁচটির জায়গায় সাতটি এক দিনের ম্যাচ খেললে বিশ্বকাপের প্রস্তুতি আরো ভাল করে সেরে নিতে পারতেন কোহালিরা। এমনিতেই ভারতীয় দল বিশ্বকাপ খেলতে যাবে আইপিএল শেষে। পঞ্চাশ ওভারে গিয়ে ব্যাটিং বা বোলিংয়ের ধরন অনেকটাই পাল্টাতে হবে।

আইপিএল প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বিরাটও এ দিন সাবধান করে দিলেন, ‘প্রত্যেককে সতর্ক থাকতে হবে। আইপিএলে খেললেও ওয়ানডের মানসিকতা থেকে যেন বেশি দূরে সরে না যায় কেউ। আইপিএলের সময় টেকনিক্যাল দিক থেকে যে বাজে অভ্যাসগুলো হয় আমাদের, সেগুলো নিয়ে সতর্ক থাকতে হবে। বিশ্বকাপে আমাদের এমন ১৫জনকে প্রয়োজন, যারা ওই সময় নিজেদের খেলা নিয়ে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী ও খুশি থাকবে।’ এই প্রসঙ্গে বিরাট আরো বলেন, ‘আইপিএলে যদি একবার বদভ্যাস হয়ে যায় এবং সে জন্য ছন্দ ও ফর্ম নষ্ট হয়, তা হলে কিন্তু বিশ্বকাপের মতো প্রতিযোগিতায় তা ফিরে পাওয়া বেশ কঠিন হবে। তাই প্রত্যেককে নিজেদের মানসিকতা ধরে রাখতে হবে এবং ভারতীয় দলে তার উপযোগিতা বজায় রাখতে হবে।’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত