প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মেসির হ্যাটট্রিকে বার্সার অসাধারণ জয়

স্পোর্টস ডেস্ক : আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে রোমাঞ্চ ছড়ানো লড়াইয়ে দুবার পিছিয়ে পড়লো বার্সেলোনা। দলকে পথ দেখাতে স্বমহিমায় জ্বলে উঠলেন লিওনেল মেসি। অধিনায়কের জাদুকরী হ্যাটট্রিকে সেভিয়ার বিপক্ষে অসাধারণ এক জয় নিয়ে ফিরলো লা লিগার বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। চ্যানেল আই, বিডি নিউজ

প্রতিপক্ষের মাঠে শনিবার স্থানীয় সময় বিকালে লা লিগার ম্যাচটি ৪-২ গোলে জেতে বার্সেলোনা। হ্যাটট্রিকের পাশাপাশি সতীর্থ লুইস সুয়ারেসের করা দলের শেষ গোলেও অবদান রাখেন মেসি। সেভিয়ার গোল দুটি করেন হেসুস নাভাস ও গাব্রিয়েল মের্কাদো।

এই জয়ে ২৫ ম্যাচে ৫৭ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষস্থান আরও সুসংহত করল কাতালানরা। এক ম্যাচ কম খেলে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ৪৭ পয়েন্টে দুইয়ে। তাদের সমান ম্যাচে ৪৫ পয়েন্টে টেবিলের তিনে রিয়াল মাদ্রিদ। আর ২৫ ম্যাচে ৩৭ পয়েন্টে পাঁচে সেভিয়া।

ম্যাচের প্রথম মিনিটেই গোল খেতে বসেছিল বার্সেলোনা। বাঁ দিক দিয়ে আক্রমণে ওঠা এভার বানেগার ছোট ডি-বক্সে বাড়ানো ক্রসে ডাচ ফরোয়ার্ড কুইন্সি প্রোমেসের টোকা ঝাঁপিয়ে ঠেকান গোলরক্ষক মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেন।

২২তম মিনিটে দুর্দান্ত এক প্রতি-আক্রমণে গোল আদায় করে নেয় সেভিয়া। নিজেদের ডি-বক্সের সামনে মেসির ভুলে প্রোমেস বল পেয়ে সামনে বেন ইয়েদেরকে বাড়ান। ফরাসি এই ফরোয়ার্ড মাঝমাঠ থেকে অনেকটা ছুটে গিয়ে ডান দিকে হেসুস নাভাসকে পাস দেন। আর স্প্যানিশ এই মিডফিল্ডার কোনাকুনি শটে দূরের পোস্ট দিয়ে বল ঠিকানায় পাঠান।

২৬তম মিনিটে দুর্দান্ত এক ভলিতে সমতা টানেন মেসি। বাঁ দিক থেকে ইভান রাকিতিচের ক্রস ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়ে বুলেট গতির শটে ক্রসবার ঘেঁষে বল জালে জড়ান আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড।

এরই সঙ্গে সেভিয়ার বিপক্ষে ২৬ গোল করে লা লিগায় কোনো এক দলের বিপক্ষে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ডটি একার করে নিলেন মেসি। এতদিন রেকর্ডটির যৌথ মালিক ছিল মেসি ও রোনালদো। গত জুলাইয়ে রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে ইউভেন্তুসে যোগ দেওয়া পর্তুগিজ ফরোয়ার্ডও সেভিয়ার বিপক্ষে ২৫ গোল করেছিলেন।

কিছুক্ষণ পর বল পায়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েছিলেন জেরার্দ পিকে। কিন্তু সঙ্গে লেগে থাকা একমাত্র ডিফেন্ডারকে কাটাতে গিয়ে দেরি করে ফেলেন তিনি।
৪২তম মিনিটে প্রতিপক্ষের ভুলের সুযোগ কাজে লাগিয়ে আবারও এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। বার্সেলোনা গোলরক্ষকের দুর্বল উঁচু শটে বল পেয়ে যায় সেভিয়া। সতীর্থের পা ঘুরে আসা বল ধরে এগিয়ে গিয়ে বাইলাইন থেকে কাটব্যাক করেন পাবলো সারাবিয়া। আর ছোট ডি-বক্সের ঠিক বাইরে থেকে কোনাকুনি শটে বল জালে পাঠিয়ে সমর্থকদের উচ্ছ্বাসে ভাসান আর্জেন্টাইন ডিফেন্ডার গাব্রিয়েল মের্কাদো।

দ্বিতীয়ার্ধের দশম মিনিটে পাল্টা আক্রমণে সমতায় ফেরার সহজ সুযোগ পেয়েছিল বার্সেলোনা। কিন্তু লুইস সুয়ারেসের পাস ছোট ডি-বক্সের বাইরে ফাঁকায় পেয়ে ঠিকমতো শট নিতে ব্যর্থ হন উসমান দেম্বেলে।
৬৭তম মিনিটে আবারও মেসির নৈপুণ্যে সমতায় ফেরে শিরোপাধারীরা। সেভিয়া গোলরক্ষকের দুর্বল নিচু শটে বল পেয়ে যায় বার্সেলোনা। সতীর্থের পাস পেয়ে উসমান দেম্বেলে বাড়ান মেসিকে। ডি-বক্সে ঢুকে ডান পায়ের বাঁকানো শটে গোলটি করেন পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার।
৭২তম মিনিটে হ্যাটট্রিক হতে পারতো মেসির। তবে তার বাঁ পায়ের জোরালো শটটি ক্রসবার ঘেঁষে বাইরে চলে যায়। ছয় মিনিট পর ডি-বক্সের ঠিক বাইরে থেকে তার আরেকটি শট কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান গোলরক্ষক।

অবশেষে ৮৫তম মিনিটে কাঙ্ক্ষিত হ্যাটট্রিক পান মেসি। কার্লেস আলেনার শট প্রতিপক্ষের এক খেলোয়াড়ের পায়ে লেগে বল চলে যায় মেসির পায়ে। চিপ শটে একটু এগিয়ে আসা গোলরক্ষকের উপর দিয়ে বল জালে জড়ান সময়ের অন্যতম সেরা এই ফুটবলার। ম্যাচে প্রথমবারের মতো এগিয়ে যায় বার্সেলোনা।

চলতি লা লিগায় সর্বোচ্চ গোলদাতা মেসির গোল হলো ২৫টি। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে মৌসুমে তার গোল হলো ৩৩টি। স্পেনের শীর্ষ লিগে মেসির এটা ৩২তম আর ক্যারিয়ারে ৫০তম হ্যাটট্রিক। ক্লাব ও জাতীয় দল মিলিয়ে ৩১ বছর বয়সী তারকার মোট গোল হলো ৬৫০টি। যোগ করা সময়ের তৃতীয় মিনিটে মেসির উঁচু করে বাড়ানো বল ডি-বক্সে পেয়ে আগুয়ান গোলরক্ষকের উপর দিয়ে লক্ষ্যে পাঠিয়ে জয় নিশ্চিত করেন সুয়ারেস।
লিগে চার ম্যাচ পর গোলের দেখা পেলেন উরুগুয়ের স্ট্রাইকার সুয়ারেস। চলতি আসরে তার গোল হলো দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৬টি।

সর্বাধিক পঠিত