প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আর্জেন্টাইন ফুটবলারের বাসায় রিয়ালের চিকিৎসক

স্পোর্টস ডেস্ক : কথা বার্তা পাকা হয়ে আছে অনেক আগেই। গত ডিসেম্বরে হওয়ার কথা ছিল আনুষ্ঠানিক চুক্তিও। কিন্তু চুক্তিটা এখনো হয়নি। নানা জটিলায় চুক্তির তারিখ পিছিয়েছে বারবার। আর বারবার চুক্তির তারিখ পিছিয়ে যাওয়ায় শঙ্কার মেঘ জমেছিল, আসলেই কি এজেকুয়েল প্যালাসিওসের সঙ্গে চুক্তিটা করতে পারবে রিয়াল? নাকি আলোচনা সব ভেস্তে গেছে?

শেষ পর্যন্ত সেই সংশয় মুছে গেল। প্রমাণিত হলো চুক্তি না হলেও রিভারপ্লেটের এই আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডারের সঙ্গে রিয়াল মাদ্রিদের পাকা কথার নড়চড় হয়নি। চোটগ্রস্ত প্যালিসিওসকে দেখতে রিয়াল মাদ্রিদের চিকিৎসক প্যানেলের বুইয়েনস এইরেসে ছুটে যাওয়া সেই স্বাক্ষ্যই দিচ্ছে।

সত্যিই তাই। সম্প্রতি আর্জেন্টাইন লিগে রেসিংর বিপক্ষে ম্যাচে পায়ে চোট পেয়েছেন ২০ বছর বয়সী প্যালাসিওস। তার চোটগ্রস্ত পায়ের অবস্থা এখন কেমন, চোট কতটা গুরুতর, সেসব পরীক্ষা করে দেখতেই আর্জেন্টিনায় ছুটে গেছেন রিয়ালের চিকিৎসকেরা। রিয়ালের চিকিৎসকদের এই সফরে বলে দিচ্ছে, আজ হোক, কাল হোক—এই আর্জেন্টাইন তরুণ ঠিকই যোগ দিতে যাচ্ছেন রিয়ালে। জটিলতাটুকু কেটে গেলেই সেরে ফেলা হবে আনুষ্ঠানিক চুক্তি।

এরই মধ্যে আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের হয়ে দুটি ম্যাচ খেলে ফেলা এই তরুণের ওপর রিয়াল মাদ্রিদ নজর রাখছিল বছর দুয়েক ধরেই। চোখে আতসী কাঁচ লাগিয়ে দীর্ঘদিন পর্যবেক্ষণ করার পর গত আগস্টে তার সঙ্গে চুক্তি করার আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত নেয় রিয়াল। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্যালাসিওসের জন্য তার ক্লাব রিভারপ্লেটের কাছে প্রস্তাবও পাঠায় রিয়াল।

অঙ্কটা লোভনীয় হওয়াতেই কিনা লিভারপ্লেট খুব বেশি গাঁইগুই করেনি। অল্প ভাবনাতেই রাজি হয়ে যায়। বিশ্বসেরা রিয়ালে যোগ দেওয়ার সুযোগ, প্যালাসিওস তো চোখ বন্ধ করে হ্যাঁ বলে ফেলেন।

পরে তিন পক্ষ মিলে চুক্তির বিষয়ে কথা-বার্তাও পাকা করে ফেলে। প্রথমে নির্ধারণ করা হয় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বোকা জুনিয়র্সের বিপক্ষে কোপা লিবার্তোদোরেসের ফাইনালের পরই চুক্তিটা সেরে ফেলা হবে। কিন্তু গত নভেম্বরের সেই ফাইনালটি পণ্ড হয়ে যায় প্রতিপক্ষ বোকা জুনিয়র্সের খেলোয়াড়দের বহনকারী গাড়িতে রিভারপ্লেটের উগ্র সমর্থক গোষ্ঠির ভয়ঙ্কর হামলায়।

যে হামলার ঘটনা ফাইনালের দ্বিতীয় লেগ ম্যাচটি পিছিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি আর্জেন্টিনার ফুটবলে নতুন করে কলঙ্কের দাগ এটে দেয়। রিয়ালের সঙ্গে প্যালাসিওসের চুক্তির বিষয়টিও পিছিয়ে যায়। পরে সেই ম্যাচটির তারিখ পুনর্নির্বাচন করা হয় ৯ ডিসেম্বর। কাকতালীয়ভাবে পুনর্নির্ধারিত ফাইনাল ম্যাচটির ভেন্যুও নির্বাচন করা হয় প্যালাসিওসের ভবিষ্যতের ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদের সান্তিয়াগো বার্নাব্যুকে।

পরে শোনা যায় নিজেদের মাঠের এই ফাইনালের পরই প্যালাসিওসের সঙ্গে চুক্তির ঝামেলাটা চুক্তিয়ে ফেলবে রিয়াল। কিন্তু কী কারণে যেন এবারও তারিখ পিছিয়ে যায়। কোপা লিবার্তোদোরেসের শিরোপা জেতার পরপরই রিভারপ্লেট আবার দুবাইয়ে খেলতে যায় বিশ্ব ক্লাব বিশ্বকাপে। কাকতালীয়ভাবে এই টুর্নামেন্টে রিয়ালও অংশ নেয়। এবং শেষ পর্যন্ত মাদ্রিদ জায়ান্টরা  চতুর্থবারের মতো শিরোপাও জিতে নেয়। পরে শোনা যায় ক্লাব বিশ্বকাপের পরই চুক্তিটা হবে। কিন্তু আবারও অদৃশ্য জটিলতায় পিছিয়ে যায় চুক্তি প্রক্রিয়া।

তবে রিয়াল চিকিৎসকদের এ্ই সফর স্পষ্ট করে বলে দিচ্ছে, রিয়াল মাদ্রিদই প্যালাসিওসের ভবিষ্যত ঠিকানা। অপেক্ষার আনুষ্ঠানিক চুক্তিটা হয়ে যাবে যেকোনো মুহূ্র্তে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত