প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শামীমাকে যুক্তরাজ্যের ফেরত নেয়া উচিৎ: জেরেমি করবিন

নিউজ ডেস্ক: জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস-এ যোগ দেয়া শামীমা বেগমকে যুক্তরাজ্যের ফেরত নেয়া উচিৎ বলে মনে করেন দেশটির বিরোধী দল লেবার পার্টির প্রধান জেরেমি করবিন।

মাত্র ১৯ বছর বয়সী শামীমা বেগম গত রোববার এক শরণার্থী শিবিরে সন্তানের জন্ম দেন। এ অবস্থায় শামীমার সহযোগিতায় যুক্তরাজ্য সরকারসহ সকলকে এগিয়ে আসতে সবার প্রতি আহ্বান জানান জেরেমি করবিন।

জেরেমি বলেন, শামীমাকে যুক্তরাজ্য সরকারের কিছু সহযোগিতায় করা উচিৎ। শামীমার ব্রিটিশ নাগরিকত্ব কেড়ে নেয়ার যে সিদ্ধান্ত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় নিয়েছে তা বাস্তবায়ন হলে এটি হবে ‘চরম হস্তক্ষেপ’।

জেরেমি করবিন বলেন, শামীমা যুক্তরাজ্যে জন্মগ্রহণ করেছে সুতরাং তার এই দেশে ফিরে আসার অধিকার রয়েছে। তারপর তাকে অবশ্যই অনেক প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হবে।তার ফেরার পর তিনি যা করেছেন তার সবকিছু নিয়ে প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হবে এবং যে কোন ধরণের পদক্ষেপ নেয়া যেতে পারে। এর জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কি কারো নাগরিকত্ব কেড়ে নেয়ার অধিকার রাখেন?

তবে জেরেমির করা এই প্রশ্নের জবাবে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ কোন ধরণের মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কেউ রাষ্ট্রহীন থাকবে তা যুক্তরাজ্যে সরকার কখনোও মেনে নিবে না।

শামীমা বেগম ২০১৫ সালে মাত্র ১৫ বছর বয়সে জঙ্গি সংগঠন আইএসের সঙ্গে জীবন কাটাতে আরও দুই বন্ধুর সঙ্গে সিরিয়ার উদ্দেশে যুক্তরাজ্য ছেড়ে চলে যান। গত সপ্তাহে সিরিয়ার এক শরণার্থী শিবিরে তাকে পাওয়া যায়। শামীমা এখন তার নতুন সন্তানকে বড় করতে যুক্তরাজ্যে ফিরতে চান। তার সন্তানের পিতা একজন আইএসআইএসের একজন সৈনিক।

এরআগে এক বিবৃতি দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলে শামীমার ব্রিটিশ নাগরিকত্ব কেড়ে নেয়া হতে পারে।তবে ব্রিটিশ আইনজীবী ডেভিড অ্যান্ডারসন কিউসি বলেছেন, ব্রিটিশ নাগরিক হিসেবে জন্ম নেয়া দ্বৈত নাগরিকত্ব না থাকাদের নাগরিকত্ব চাইলেই কেড়ে নেয়া যাবে না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত